১৪টি রাজ্যের নাটক নিয়ে জাতীয় উৎসব নৈহাটির ‘রঙ্গসেনা’র

করোনা আবহে থমকে গেছে গোটা বিনোদন জগৎ। বন্ধ দেশের অধিকাংশ থিয়েটার হল কিংবা প্রেক্ষাগৃহ। তাবলে, শিল্পের পথ তো আর থমকে থাকতে পারে না। তাই মহামারীর কঠিন পরিস্থিতিতে এবার শিল্পীদের হাতিয়ার হয়ে উঠল ডিজিটাল মাধ্যম। নৈহাটির নাট্য সংগঠন ‘রঙ্গসেনা’-র তত্ত্বাবধানে আয়োজিত হল দু’সপ্তাহ ব্যাপী জাতীয় নাট্য উৎসব।

বিগত ১০ জুলাই উদ্বোধন হয় এই নাট্য উৎসবের। এদিন ভার্চুয়াল কনফারেন্সের মাধ্যমেই অনুষ্ঠানের সূচনা করেন দেশের বিশিষ্ট নাট্য ব্যক্তিত্বরা। বিশিষ্ট অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন অশোক মিশ্র, চন্দ্রা দাসান, ডঃ সেঁজুতি রায় মুখার্জি, ইয়ামনাম সান্দান সিং এবং বলবন্ত ঠাকুর। তাঁদের স্মারক বক্তৃতার পর শুরু হয় মূল নাট্য প্রদর্শনী। প্রথমদিন দেখানো হয় পরিচালক গুনকার দেব গোস্বামীর পরিচালিত অহমিয়া নাটক ‘দ্য জার্নি অফ দ্য রিং’। 

মহারাষ্ট্র, ত্রিপুরা, আসাম, বিহার, দিল্লি, কর্ণাটক-সহ সব মিলিয়ে প্রায় ১৪টি রাজ্য থেকে বিভিন্ন নাট্যদল অংশ নিচ্ছে এই নাট্য উৎসবে। বাংলা ছাড়াও প্রদর্শিত হবে অহমিয়া, হিন্দি, ইংরাজি, মগধি এবং কন্নড় ভাষার একাধিক নাটক। অভিনব এই নাট্য উৎসব দেখা যাচ্ছে রঙ্গসেনার ইউটিউব এবং ফেসবুক পেজে। প্রতিদিনই সন্ধে ৮টা থেকে ধারাবাহিকভাবে প্রদর্শিত হচ্ছে একটি করে নাটক।

আরও পড়ুন
সাইকেলে চেপে সুন্দরবন, বাদাবনে বাঘের চাল দেখাবেন নাট্যকর্মীরাই

আরও পড়ুন
‘বাবরি মসজিদ ধ্বংসের পর বদলেছিলাম পুরনো নাটকের সংলাপও’ : শাঁওলি মিত্র

রঙ্গসেনার এই জাতীয় নাট্য উৎসব এবার পা দিল দ্বিতীয় বর্ষে। এর আগেও একাধিক নাট্য উৎসব আয়োজন করেছে স্বনামধন্য নাট্য সংস্থা রঙ্গসেনা। ভারত তো বটেই বাংলাদেশের বিভিন্ন নাটকও প্রদর্শিত হয়েছে তাঁদের তত্ত্বাবধানে। কিন্তু আর পাঁচটা নাট্য উৎসবের থেকে কেন আলাদা রঙ্গসেনার এই প্রদর্শনী? 

আরও পড়ুন
হেল্পডেস্ক তৈরি করলেন কোভিড-আক্রান্ত নাট্যশিল্পীরাই

“প্রতিটি নাট্যদলই তাদের অভিনীত নাটক রেকর্ড করে আমাদের পাঠিয়েছিল। সেগুলিরই প্রিমিয়ার হওয়ার আগে আমরা অনলাইন একটি আলোচনাসভার আয়োজন করছি। যেখানে অংশ নিচ্ছেন সংশ্লিষ্ট নাটকের পরিচালক এবং অভিনেতারা। নাটকের প্রেক্ষাপট, তার নির্মাণ এবং পিছনের ইতিহাসটাও যেন দর্শকদের সামনে তুলে আনা যায় সেই চেষ্টাই করছি আমরা”, জানালেন উৎসব আহবাহক তথা রঙ্গসেনার অন্যতম সদস্য ধ্রুপদ ঘোষ। চলতি মাসের আগামী ২৪ তারিখ পর্যন্ত চলবে এই নাট্য উৎসব। মহামারীর আবহে বাঙালি নাট্যশিল্পীদের এই উদ্যোগ এককথায় সত্যিই অভিনব। প্রশংসনীয়ও বটে…

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More