মহামারীর মধ্যেও সুখবর, দক্ষিণ আফ্রিকায় গণ্ডারের চোরাশিকার কমেছে এক-তৃতীয়াংশ

দক্ষিণ আফ্রিকা বললেই চোখের সামনে ভেসে ওঠে একটি প্রাণীর ছবি। একশৃঙ্গ গণ্ডার। তবে পরিবেশ দূষণ এবং চোরা শিকারীদের দৌরাত্যে ক্রমশ তাদের অস্তিত্বই হারিয়ে যেতে বসেছে। পরিবেশ কর্মীরা তাই নিয়ে রীতিমতো চিন্তিত। তবে বন্যপ্রাণ সংরক্ষণের ক্ষেত্রে রীতিমতো খুশির খবর নিয়ে এসেছে ২০২০ সাল। আর এই বছর দক্ষিণ আফ্রিকার গণ্ডার শিকারের সংখ্যাও কমেছে এক-তৃতীয়াংশ। সম্প্রতি প্রকাশিত রিপোর্টে তেমনটাই জানিয়েছে সে দেশের বনবিভাগ।

রিপোর্ট বলছে, ২০২০ সালে গোটা দক্ষিণ আফ্রিকায় ৩৯৪টি গণ্ডার হত্যা করা হয়েছে। ২০১৯ সালে সেইও সংখ্যাটা ছিল ৫৯৪। এই সংখ্যা হ্রাসে সত্যিই খুশি পরিবেশ কর্মীরা। তবে অনেকেই মনে করছেন, করোনা অতিমারী ও তার ফলে লকডাউনের জেরেই চোরা শিকারের সংখ্যা কমেছে। এর পিছনে সুদূরপ্রসারী কোনো প্রভাব নেই। শুধু যে গণ্ডার শিকার কমেছে, তাই নয়। সমস্ত ধরণের চোরা শিকারের ঘটনাই কমেছে ২১ শতাংশের বেশি।

অবশ্য পরিসংখ্যান বলছে ২০১৫ সাল থেকে প্রতি বছরই দক্ষিণ আফ্রিকায় চোরা শিকারের ঘটনা কমে আসছে। সে-বছর ১৫৭৩টি গণ্ডার বে-আইনি শিকারে প্রাণ হারিয়েছিল। আজকের তুলনায় সেই সংখ্যাটা সত্যিই অবিশ্বাস্য। তবে ২০২০ সালেও লকডাউন শিথিল হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তাল মিলিয়ে বেড়েছে শিকারের ঘটনাও। আর ৫০ শতাংশ গণ্ডারই প্রাণ হারিয়েছে ডিসেম্বর মাসে। যার বেশিরভাগটাই আবার ঘটেছে ক্রুগার ন্যাশানাল পার্কে। তাই সব মিলিয়ে এখনও নিশ্চিন্ত হতে পারছেন না বিশেষজ্ঞরা।

Powered by Froala Editor

More From Author See More