সংবাদ-স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ সরকারের, আন্তর্জাতিক সূচকে ৮ ধাপ পিছোল ভারত

সংবাদমাধ্যমকে চিহ্নিত করা হয় গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভ হিসাবে। নিরপেক্ষ সংবাদমাধ্যম যেকোনো প্রগতিশীল দেশের অন্যতম প্রতীক। তবে ক্ষমতাশীল রাজনৈতিক দলের প্রভাবে ক্রমশ গতিরুদ্ধ হয়ে পড়ছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম। সম্প্রতি এমনটাই ফুটে উঠল আন্তর্জাতিক সমীক্ষার রিপোর্ট। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এবং সাংবাদিকদের বাকস্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করছে সরকার, তার স্পষ্ট ইঙ্গিত পাওয়া গেল ‘সংবাদ-স্বাধীনতা সূচক’-এ। 

গতকাল প্রকাশিত হয়েছিল মিডিয়া ওয়াচডগ ‘রিপোর্টার্স সানস ফ্রন্টিয়ার’ (Reporters Sans Frontier) বা ‘রিপোর্টার্স উইদআউট বর্ডার্স’-এর ওয়ার্ল্ড প্রেস ফ্রিডম ইনডেক্স (World Press Freedom Index)। সেই তালিকায় বিশ্বের ১৮০টি দেশের মধ্যে ভারত জায়গা পেল ১৫০তম স্থানে। উল্লেখ্য, ২০২১ সালে ভারতের ক্রমাঙ্ক ছিল ১৪২। অর্থাৎ, এক বছরের মধ্যেই ৮ ধাপ নেমেছে ভারত স্থান। 

রিপোর্টে সার্বিকভাবে উল্লেখিত হয়েছে কেন্দ্র সরকারের সংবাদ-স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপের কথা। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম বর্তমানে শুধু রাজনৈতিকভাবেই পক্ষপাতদুষ্ট নয়, একইসঙ্গে সাম্প্রদায়িকতাও ক্রমশ গ্রাস করছে ভারতের সংবাদমাধ্যমে। এমনটাই জানাচ্ছে আন্তর্জাতিক সংস্থাটির রিপোর্ট। বিশেষ করে কোভিডের সময় আরও বেশি করে সংবাদমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করতে চেয়েছে ভারত সরকার। আন্তর্জাতিক সংস্থার দাবি, সরকারের রিপোর্টের সঙ্গে সংবাদমাধ্যম কর্তৃক প্রদত্ত তথ্যের ফারাক হওয়ায়, একাধিক সংবাদ সংস্থার বিরুদ্ধে মামলাও করেছে কেন্দ্র। কখনও আবার সরকারের ব্যক্তিগত আক্রোশের শিকার হয়েছেন সাংবাদিকরা। শুধু ২০২০-২১ সালের মধ্যেই কারাবন্দি হয়েছেন ১৩ জন সাংবাদিক। তাছাড়াও সরকারের বিরোধিতা ও সমালোচনা করায় ‘দেশদ্রোহী’ তকমা পেয়েছেন বহু সাংবাদিক, কারোর বিরুদ্ধে আবার মানহানির মামলাও করেছেন নানান রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব। সবমিলিয়ে ভারতীয় গণতন্ত্রের সুস্বাস্থ্য হারানোর কথাই বার বার ফিরে এসেছে রিপোর্টে।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে আন্তর্জাতিক সংবাদ-স্বাধীনতা সূচকে ভারতের স্থান ছিল ১৩৭। তারপর ক্রমাগত একটু একটু করে পিছিয়েছে ভারত। সেদিক থেকে দেখতে গেলে, নরেন্দ্র মোদী সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই যেন ক্রম-অবনতি হয়ে চলেছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের। যা জাতীয় প্রগতি এবং গণতন্ত্রের বিপ্রতীপ। গতকাল আন্তর্জাতিক সংবাদ-স্বাধীনতা দিবসে আরও একবার আলোচনায় উঠে এল ভারতীয় রাজনৈতিক পরিস্থিতির সেই নগ্ন দৃশ্যই… 

আরও পড়ুন
জনসংখ্যা মাত্র ৩০০, স্বাধীনতার দাবিতে লড়ছে ইতালির ছোট্ট গ্রাম

Powered by Froala Editor

আরও পড়ুন
গান্ধীজির আদর্শে আজীবন লড়াই, পদ্মশ্রী পেলেন দমনের বৃদ্ধা স্বাধীনতা সংগ্রামী

More From Author See More