লাইব্রেরি থেকে উদ্ধার কবি অ্যান্ড্রু প্যাটারসনের ১২০ বছরের পুরনো চকলেট, জড়িয়ে যুদ্ধের ইতিহাসও

ছোট্ট টিনের একটি বাক্স। তার ওপরে রানি ভিক্টোরিয়ার ছবি। আর বাক্সের ওপর খোদাই করা তারিখ জানান দিচ্ছে ১৯০০ সালে প্যাকেজিং হয়েছিল বাক্সটির। সে বাক্স খুলতেই বেরিয়ে এল চকলেট। তার সঙ্গে অদ্ভুত এক সুগন্ধ। এত বছর পরেও সামান্য ক্ষয় হওয়া সত্ত্বেও অক্ষত আছে সেই চকলেট। ১২০ বছর আগের এই চকোলেটের বাক্স সম্প্রতি খুঁজে পেল অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় গ্রন্থাগার।

তবে সাধারণ কোনো প্রাচীন চকলেটের থেকে সদ্য খুঁজে পাওয়া এই চকলেটের গুরুত্ব অনেকটাই বেশি। এর সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে এক অন্য ইতিহাসও। কারণ চকলেটটি ‘ওয়াল্টজিং মাতিলদা’, ‘দ্য ম্যান ফ্রম স্নোয়ি রিভার’— ইত্যাদি বিখ্যাত কবিতাগুলির স্রষ্টা অস্ট্রেলিয়ান কবি অ্যান্ড্রু বার্টন প্যাটারসনের ব্যক্তিগত সংগ্রহ থেকেই উদ্ধার করেন এনএলএ সংরক্ষকরা। কবি অ্যান্ড্রু বার্টনের বাড়ি থেকে সংগ্রহ বেশ কিছু পেপার কাটিং, অপ্রকাশিত কবিতার ডায়েরি এবং ব্যক্তিগত সংগ্রহে বই স্তূপ হয়ে জমে ছিল লাইব্রেরির কনসারভেশন ল্যাবে। সেইসব প্রত্নতাত্ত্বিক সামগ্রী সম্প্রতি বাছাই করতে গিয়েই বেরিয়ে আসে তার মধ্যে লুকিয়ে থাকা চকলেটের বাক্সটি।

১৯০০ সাল। দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে তখন বোয়ার যুদ্ধে জড়িয়ে পড়েছে ব্রিটেন। সেই যুদ্ধের সময়ই রানি ভিক্টোরিয়া উপহার হিসাবে এই চকলেট পাঠিয়েছিলেন যুদ্ধরত সেনাদের জন্য। সঙ্গে নতুন বছরের শুভেচ্ছাপত্র। ঐতিহাসিক এই চকলেট তৈরি করেছিল ‘ক্যাডবেরি’। তাঁদের থেকেই রানি ভিক্টোরিয়া প্রায় ৭০-৮০ হাজার টিন বিশেষভাবে প্যাকেজিং করিয়ে এনেছিলেন। যার খরচের সিকিভাগও রাজকোষ থেকে যায়নি, নিজের ব্যক্তিগত সঞ্চয় থেকেই সমস্ত মূল্য দিয়েছিলেন ভিক্টোরিয়া।

তবে দক্ষিণ আফ্রিকার রুক্ষ পরিবেশে চকলেটগুলি যাতে নষ্ট না হয় তাই বিশেষভাবে প্রস্তুত করেছিল ক্যাডবেরি ব্রাদার্স। খড়ের প্যাকেজিং-এর ভিতর টিনের বাক্স ভরে পাঠানো হয়েছিল চকলেটগুলি। তারও ভেতরে ছিল সিলভার ফয়েলের মোড়ক। সবটাই অক্ষত অবস্থায় খুঁজে পান লাইব্রেরি সংরক্ষকরা।

১৮৮৯ সাল থেকে সিডনি মর্নিং হেরল্ড, দ্য এজ— ইত্যাদি অস্ট্রেলিয়ার প্রথম সারির সংবাদপত্রে কাজ করেছিলেন অ্যান্ড্রু প্যাটারসন। ১৯০০ সাল নাগাদ সাংবাদিক হিসাবেই যুদ্ধ চলাকালীন দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়েছিলেন তিনি। সেইসময় কোনো ব্রিটিশ সৈন্যের থেকে তিনি সংগ্রহ করেন এই চকলেটের কৌটো। তবে স্পষ্টতই বোঝা যায়, যুদ্ধের স্মৃতি জড়িয়ে আছে বলেই তিনি ব্যবহার করেননি সেটি। বরং নিজের ব্যক্তিগত সংগ্রহ হিসাবেই সংরক্ষণ করেছিলেন অস্ট্রেলিয় কবি।

তবে লাইব্রেরিতে দীর্ঘদিন অবহেলায় পড়ে থাকার পর এবার গতি হচ্ছে চকলেটের বাক্সটির। অ্যান্ড্রু প্যাটারসনের ব্যবহৃত সামগ্রীর হিসাবেই লাইব্রেরি মিউজিয়ামে প্রদর্শিত হবে সেটি...

আরও পড়ুন
অস্ট্রেলিয়া থেকে পাড়ি দিয়েছিল এশিয়ায়, উদ্ধার ১০ কোটি বছরের প্রাগৈতিহাসিক ফুল

Powered by Froala Editor