সেরে উঠেছেন লক্ষাধিক মানুষ, করোনা-আক্রমণের বিপরীতে আশার আলো

কাগজে, টিভিতে বেড়ে যাচ্ছে আক্রান্তের সংখ্যা। মারা যাচ্ছেন বহু লোক। সংক্ষেপে, এটা গোটা বিশ্বে করোনা মহামারীর ছবি। কিন্তু এটাই কি সম্পূর্ণ ছবি? সবাই কি মারাই যাচ্ছেন খালি? একদমই নয়। বহু রোগী সুস্থও হয়ে উঠছেন। আর সেই সংখ্যাটা নেহাত কম নয়।

আরও পড়ুন
বিশ্বজুড়ে মেডিক্যাল পরিষেবা সহজলভ্য করতে ক্লাউড ওয়েবসাইট আলিবাবা-র

এই বছরের শুরু থেকে মারাত্মক আকার নেয় করোনা ভাইরাস। যদিও শুরু হয়েছিল গত বছরের শেষের সময়। চিন থেকে ক্রমে ইতালি, ফ্রান্স-সহ ইউরোপের অনেক জায়গা, আমেরিকা, এশিয়াতেও ছড়িয়ে পড়েছে এই রোগ। জারি হয়েছে সতর্কতা, মহামারী। এখনও অবধি গোটা বিশ্বে সাড়ে তিন লাখের মতো মানুষ করোনার গ্রাসে। মারা গেছেন ১৫ হাজারেরও বেশি। এই খবর প্রতিনিয়ত আমাদের চোখের সামনে ভাসছে। সংখ্যাগুলোও বদলে যাচ্ছে মুহুর্মুহু।

আরও পড়ুন
কমছে দূষণ, বাড়ছে পাখি-প্রজাপতির সংখ্যা; স্তব্ধ কলকাতায় অন্যরকম প্রাণসঞ্চার

কিন্তু এটা তো পুরোটা নয়। তাসের উল্টো পিঠটাও তো আমাদের নজরে আসা দরকার। সেখানে তো অন্ধকার নেই; বরং আছে আশার আলো। সাড়ে তিন লাখেরও বেশি আক্রান্তের মধ্যে ইতিমধ্যেই কিন্তু সুস্থ হয়ে গেছেন এক লক্ষেরও বেশি মানুষ। সূত্র অনুযায়ী, এই সুস্থ মানুষের সংখ্যাটা এখনও অবধি ১ লাখ ২ হাজার ৪২৯। এবং সংখ্যাটা কিন্তু ক্রমশ বাড়ছে। চিনে এখনও অবধি আক্রান্তের সংখ্যা ৮১ হাজারের কিছু বেশি। আজ তাঁদের মধ্যে ৭২ হাজার ৭০৩ জন সুস্থ হয়ে গেছেন। সবথেকে মারাত্মক অবস্থা যে দেশের, সেই ইতালিতে মৃতের থেকে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা বেশি। একই অবস্থা স্পেনেরও।

আরও পড়ুন
দুর্গতের জন্য রাস্তায় খাবারের প্যাকেট রেখে আসছেন মানুষ, মানবতার ছবি ইস্তাম্বুলে

এই পুরো ছবিটা একটাই কথা বলে। অযথা উত্তেজিত হবেন না। সমস্ত নিয়ম মানুন। ডাক্তাররা যেটা বলছে, সেটা করুন। আর কিচ্ছু না। করোনা ভাইরাসের এই সাংঘাতিক চেনকে ভাঙতে হলে সবাইকে একসঙ্গে হতে হবে। নয়তো বিপদ বাড়বে বই কমবে না।

More From Author See More

Latest News See More