দক্ষিণী অভিনেতা শিবাজী গণেশনের জন্মদিবসে গুগলের বিশেষ ডুডল

মারাঠা সম্রাট শিবাজীকে নিয়ে মঞ্চস্থ হচ্ছে একটি নাটক। ক্যালেন্ডারের হিসাবে ১৯৪৫ সাল। দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের তখন শেষ লগ্ন। আর এই সময় ভারতের যে সমস্ত ঐতিহাসিক চরিত্রগুলিকে নায়কের আসনে বসানো হয়েছিল, শিবাজী তাঁদের মধ্যে অন্যতম। তাই সারা দেশজুড়েই তাঁকে নিয়ে বহু নাটক মঞ্চস্থ হয়। কিন্তু এবারের নাটক যেন এক আলাদা মাত্রা পেল। শিবাজীর চরিত্রে যে যুবকটি ছিলেন, তাঁর অভিনয়ে মুগ্ধ সকলেই। এরপর বাকিটা ইতিহাস। অভিনেতার নামের সঙ্গেই জড়িয়ে গেল শিবাজীর নাম। গণেশমূর্তি হলেন শিবাজী গনেশন (Sivaji Ganesan)। আজ সেই কিংবদন্তি অভিনেতার ৯৭ তম জন্মদিন। আর তাঁকে সম্মান জানাতে গুগলের পক্ষ থেকে প্রকাশিত হল বিশেষ ডুডল (Google Doodle)।

১৯২৮ সালে ১ অক্টোবর বর্তমান তামিলনাড়ুর বিল্লুপুরম গ্রামে জন্ম গণেশমূর্তির। মোটামুটি উচ্চমধ্যবিত্ত পরিবারে জন্ম তাঁর। বাড়ির সংস্কৃতিতে কেউ কোনোদিন কল্পনাও করেননি ছেলে থিয়েটারে অভিনয় করে বেড়াবে। কিন্তু মনের খিদে মেটাতে মানুষ সবই করতে পারেন। গণেশমূর্তিও তাই মাত্র ৭ বছর বয়সে বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছিলেন। সেই থেকে অভিনয় জীবনের শুরু। প্রথমদিকে নাটকে অভিনয়ের কাজ তেমন পেতেন না। বাকি সব কাজই করতে হত। একটু একটু করে যখন জায়গা করে নিচ্ছিলেন, ঠিক তখনই মঞ্চস্থ হল শিবাজীর জীবন নিয়ে নাটকটি। এরপর আর ফিরে তাকাতে হয়নি শিবাজী গণেশনকে। কয়েক বছরের মধ্যেই নাটকের মঞ্চ ছেড়ে পা দিলেন সিনেমার জগতে। ১৯৫২ সালে মুক্তি পেল তাঁর প্রথম সিনেমা ‘পরাশক্তি’। সারা জীবনে তামিল সিনেমাতেই অভিনয় করেছেন বেশি। এছাড়াও তেলেগু, কন্নড়, মালয়ালম সিনেমার পাশাপাশি বহু হিন্দি সিনেমাতেও দেখা গিয়েছে তাঁকে। সারা জীবনে ৩০০টির বেশি সিনেমায় অভিনয় করেছেন শিবাজী গণেশন।

১৯৬০ সালে ‘বীরপন্ডিয়া কাট্টাবোমান’ সিনেমার জন্য কায়রো আফ্রো-এশিয়ান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে সেরা অভিনেতার পুরস্কার পান গণেশন। তিনিই প্রথম ভারতীয় অভিনেতা, যিনি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে সেরা অভিনেতা নির্বাচিত হয়েছেন। ২০০১ সালে মৃত্যু হয় তাঁর। শেষ জীবনে অবশ্য অভিনয়ের জগত থেকে অনেকটাই সরে গিয়েছিলেন তিনি। আজ কিংবদন্তি অভিনেতার জন্মদিনের কথা ভেবে ডুডলটি বানিয়েছেন বেঙ্গালুরুর শিল্পী নুপুর রাজেশ চোকসি। আর সেই ডুডলটিই প্রকাশিত হয়েছে গুগলের হোমপেজে। সামাজিক মাধ্যমে ডুডলটি শেয়ার করে স্মৃতিচারণ করেছেন গণেশনের পৌত্র অভিনেতা বিক্রম প্রভু। এছাড়াও সামাজিক মাধ্যমে তাঁর গুণমুগ্ধ অনেকেই ছড়িয়ে দিচ্ছেন ডুডলটি।

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More