পূর্ব ভারতের প্রথম ফুসফুস প্রতিস্থাপন, নজির কলকাতার চিকিৎসকদের

করোনা ভাইরাসের কারণে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয় মানুষের ফুসফুস। একটা সময়ের পর আর চিকিৎসকদেরও কিছু করার থাকে না। বিদেশের বহু হাসপাতালে ফুসফুস প্রতিস্থাপনের (Lung Transplantation) ব্যবস্থা থাকলেও ভারতে, বিশেষত পূর্ব ভারতে সেই সুযোগ এতদিন ছিল না বললেই চলে। তবে সবাইকে অবাক করে দিয়ে পূর্ব ভারতের প্রথম (First in Eastern India) ফুসফুস প্রতিস্থাপনের নজির সৃষ্টি হল কলকাতাতেই। গতকাল সারারাত ধরে মেডিকা সুপারস্পেসালিটি হসপিটালে চলে এই বিরল অস্ত্রপ্রচার।

প্রায় ৪ মাস আগে করোনা সংক্রমণ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন বছর ৪০-এর এক ব্যক্তি। এর মধ্যে চিকিৎসকদের চেষ্টায় ভাইরাসের সংক্রমণ রোধ করা গেলেও রোগীর ফুসফুস একেবারে অকেজো হয়ে যায়। গত ১০৩ দিন ধরে মেডিকাতে একমো সাপোর্ট বা ভেন্টিলেশনে ছিলেন ওই ব্যক্তি। এমনটাই জানানো হয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে। পুরোপুরি সুস্থ হয়ে ওঠার জন্য প্রয়োজন ছিল দুটি সম্পূর্ণ সুস্থ ফুসফুসের। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গের কোথাও তেমন ফুসফুস পাওয়া যাচ্ছিল না। এর মধ্যেই গুজরাটের সুরাট থেকে একটি সদ্য মৃত ব্যক্তির কথা জানতে পারেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। ব্রেন ডেথের কারণে মৃত ওই ব্যক্তি আগেই দেহদান করে গিয়েছেন। কিন্তু তাঁর রক্তের গ্রুপের সঙ্গে সুরাটের কোনো রোগীর রক্তের গ্রুপ মেলেনি। ঘটনাচক্রে কলকাতার রোগীর সঙ্গে তা হুবহু মিলে যায়। এই খবর জানতে পেরেই মেডিকা থেকে চিকিৎসকদের একটি দল পৌঁছে যান সুরাটে। অন্য একটি দল কলকাতায় অপারেশনের সমস্ত তোরজোর করতে থাকেন।

গতকাল সন্ধ্যায় কলকাতায় এসে পৌঁছায় সুরাটের ওই ব্যক্তির দুটি ফুসফুস। আর তারপরেই রাত ১০টা নাগাদ শুরু হয় অপারেশন। প্রায় ৭ ঘণ্টা ধরে অপারেশন চলার পর রোগীকে ওটি থেকে বের করে আনা হয়। যদিও এখনও তাঁকে একমো সাপোর্টের মধ্যেই রাখা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। তবে অপারেশন প্রাথমিকভাবে সফল। ক্রমশ রোগী সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে উঠবেন বলেই আশা করছেন চিকিৎসকরা। গত মার্চ মাসে মেডিকা হসপিটালেই পূর্ব ভারতের প্রথম হৃদযন্ত্র প্রতিস্থাপনের অপারেশনও ঘটেছিল। একের পর এক এমন বিরল অস্ত্রপ্রচারে অঙ্গ প্রতিস্থাপনের নতুন ইতিহাস তৈরি করছেন কলকাতার চিকিৎসকরা।

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More