এই প্রথম মানবদেহে বার্ড ফ্লু সংক্রমণ, আবারও আঁতুড়ঘর চিন

চার বছর পর আবার ফিরল বার্ড ফ্লু-র আতঙ্ক। শেষ ২০১৬-১৭ সালে ‘এইচ৭এন৯’ নামক বার্ড ফ্লু ভাইরাসের একটি স্ট্রেনের সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছিল প্রায় ৩০০ মানুষের। তবে তারপর আর নতুন করে সংক্রমণ ধরা পড়েনি বার্ড ফ্লু-র। এবার করোনা মহামারীর মধ্যে মানবদেহে পুনরায় বার্ড ফ্লু-র সংক্রমণ চিন্তা বাড়াল নতুন করে।

করোনাভাইরাসের মতোই এবার বার্ড ফ্লু-র আঁতুড়ঘর সেই চিনই। চিনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের রিপোর্ট অনুযায়ী বার্ড ফ্লু সংক্রমণের ঘটনাটি ধরা পড়েছে পূর্ব চিনের জিয়াংসু প্রদেশে। আর এই সংক্রমণের জন্য দায়ী ‘এইচ১০এন৩’ নামের একেবারে নতুন একটি ভাইরাস স্ট্রেন। নতুন বলা ভুল হবে। কয়েক বছর আগেই পাখির দেহে সন্ধান মিলেছিল এই ভাইরাসের। তবে মানবদেহে তার সংক্রমণ হল এই প্রথম। 

চিনের স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত এই নতুন ভাইরাল স্ট্রেনে আক্রান্ত হয়েছেন মাত্র একজনই। ঝিনজিয়াং শহরের ৪১ বছর বয়সী ওই ব্যক্তির শারীরিক অবস্থা এখন স্থিতিশীল। গত সপ্তাহে জ্বর ও বেশ কিছু উপসর্গ নিয়ে ওই ব্যক্তি ভর্তি হয়েছিল স্থানীয় একটি হাসপাতালে। রক্তের নমুনা নিয়ে জিনোম সিকোয়েন্স করতেই সামনে আসা এই নতুন স্ট্রেনের অস্তিত্ব। তারপরই তড়িঘড়ি ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানাচ্ছে ডিজিস কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন বোর্ড। 

তবে এই নতুন ভাইরাস থেকে মহামারী ছড়ানোর আশঙ্কাকে প্রথমেই নস্যাৎ করে দিয়েছে চিনের স্বাস্থ্য দপ্তর। জানানো হয়েছে, এই স্ট্রেন থেকে সংক্রমণ ছড়ানোর সম্ভাবনা খুবই কম। পাশাপাশি অ্যাভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জার এই সাবটাইপ মানুষের পক্ষে ততটাও ঝুঁকিপূর্ণ নয় বলেই জানাচ্ছেন তাঁরা। রিপোর্টে বলা হয়েছে, মূলত হাঁস-মুরগি জাতীয় পোলট্রি পাখিদের থেকেই এই সংক্রমণ। কিন্তু মানবদেহে তার সংক্রমণ হল কীভাবে— সে ব্যাপারে এখনও কোনো স্পষ্ট ব্যাখ্যা দিয়ে উঠতে পারেনি চিন। 

আরও পড়ুন
ভাইরাসের পর এবার সংক্রমণ ঘাতক ছত্রাকের, সিঁদুরে মেঘ দেখছেন চিকিৎসকরা

ইতিমধ্যেই ঝিনজিয়াং শহরে বেশ তৎপর হয়েই কাজ শুরু করেছে প্রশাসন। প্রচার শুরু হয়েছে যাতে স্থানীয় মানুষের অসুস্থ হাঁস-মুরগির সংস্পর্শে না আসেন। সেইসঙ্গে মাস্ক ব্যবহার এবং উপসর্গ দেখা দিলেই সঙ্গে সঙ্গে পরীক্ষা করারও পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। চিনের এই তৎপরতাই নতুন করে উসকে দিচ্ছে বিতর্ক। এমনকি তথ্য গোপনের তত্ত্বও সামনে রেখেছেন কেউ কেউ…

আরও পড়ুন
এক ভারতীয়ের মাধ্যমে ছড়িয়েছিল প্রাণঘাতী ভাইরাস, ভ্যাকসিনই বাঁচিয়ে দেয় স্কটিশ শহরকে

Powered by Froala Editor

আরও পড়ুন
ছড়াতে পারে নিপা-সহ একাধিক নোভেল ভাইরাস! আশঙ্কা নতুন মহামারীর

More From Author See More

Latest News See More