প্রবেশপথে ‘ব্রাত্য’ বাংলা? ফুলবাগান মেট্রো স্টেশন নিয়ে ক্ষুব্ধ শহরবাসী

জাতিপুঞ্জের কড়া নির্দেশ, শিক্ষাক্ষেত্রে মাতৃভাষাকে প্রাধান্য দিতে হবে। কিন্তু ভাষা তো মানুষের সবসময়ের সঙ্গী। সেখানে এমন কিছু নির্দেশে আর কতটুকুই বা যায় আসে? ঠিক যেমন হোঁচট খেতে হবে সদ্য চালু হওয়া ফুলবাগান মেট্রো স্টেশনের সামনে গিয়ে। কলকাতা শহরের বুকে এই স্টেশনে গেলে প্রথমেই চোখে পড়বে হিন্দি এবং ইংরেজিতে লেখা নাম। সাময়িক আশ্চর্যভাব কাটিয়ে উঠে চারিদিক খুঁজে দেখলে অবশ্য চোখে পড়বে, বাংলা অক্ষরেও নাম লেখা আছে। বরং অন্য দুই ভাষার মাথার উপরেই আছে। কিন্তু তার জালির মধ্যে লেখা নামের পিছনে খোলা আকাশ। ফলে সহজে সেটা চোখে পড়ার নয়।

আশির দশকে দেশের প্রথম মেট্রো রেলের পথচলা শুরু হয় কলকাতা শহরেই। সেই থেকে কলকাতা মেট্রো রেলের সঙ্গে বাঙালির একরকম আত্মীয়তার সম্পর্ক। এর মধ্যে ১৯৯৫ সালে মহাত্মা গান্ধী রোড মেট্রো স্টেশনের উদ্বোধনের পর থেকে প্রতিটা নতুন স্টেশনের উদ্বোধন হয়েছে মাটির উপরে। আবার ২৫ বছর পর মাটির নিচে মেট্রো স্টেশন হিসাবে পথচলা শুরু করল ফুলবাগান স্টেশন। এতদিন পর আবার যেন ‘পাতাল রেল’ শব্দটা তার সার্থকতা খুঁজে পেল। ফলে স্বাভাবিকভাবেই শহরবাসীর আগ্রহ ছিল চরমে। কিন্তু এই স্টেশনে কেন এভাবে একপেশে করে রাখা হল বাংলা ভাষাকে, সেবিষয়ে প্রশ্ন তুলছেন নাগরিকদের একাংশ।

এর আগে প্রতিটা মেট্রো স্টেশনের ক্ষেত্রেই দেখা গিয়েছে বাংলা, হিন্দি এবং ইংরেজি তিনটে ভাষাতেই স্টেশনের নাম লেখা আছে প্রবেশপথে। অন্যান্য রেলওয়ে স্টেশনেও সাধারণত তাই থাকে। এমনকি কিছুদিন আগে সল্টলেক সেক্টর ৫ থেকে যুবভারতী পর্যন্ত মেট্রো স্টেশন চালু হলে সেখানেও এই নিয়মের অন্যথা দেখা যায়নি। তাহলে হঠাৎ ফুলবাগানের ক্ষেত্রে সেই রীতি থেকে বিচ্যুতি ঘটল কেন? এ-বিষয়ে কলকাতা মেট্রো রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক ইন্দ্রাণী ব্যানার্জির সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি অবশ্য বলেন, “আমরা নিয়ম মেনে তিনটে ভাষাতেই স্টেশনের নাম লিখেছি। সেখানে কোনো খুঁত আছে বলে মনে হয়নি। এরপর কারোর কোনো অভিযোগ থাকলে তিনি আমাদের লিখিতভাবে জানাতে পারেন।”

তবে এর আগেও দেখা গিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষের ওয়াটার ভেন্ডিং মেশিনে বাংলা হরফে হিন্দি উচ্চারণ লেখা। অন্যান্য নানা ক্ষেত্রেও হিন্দি ভাষার আগ্রাসী চরিত্র প্রকাশ পেয়েছে বারবার। এবার কি তাহলে কেন্দ্রীয় প্রকল্পের ঘাড়ে চেপে বাংলা ভাষাকে পাশে সরিয়ে রাখার চেষ্টাই দেখা গেল আবার? সামাজিক মাধ্যমে এমন প্রশ্ন তুলছেন অনেকেই।

আরও পড়ুন
২৫ বছর পর আবারও মাটির নিচে মেট্রো স্টেশন পেল কলকাতা

Powered by Froala Editor

আরও পড়ুন
বাংলার দেখানো পথেই হাঁটছে মহারাষ্ট্র, ভিড় মোকাবিলায় ই-পাসে ভরসা মেট্রোর

More From Author See More

Latest News See More

avcılar escortbahçeşehir escortdeneme bonusu veren sitelerbahis siteleri