সতর্কতার মধ্যেই অনুষ্ঠান, অনলাইন স্ট্রিমিং-এর আয়োজন বাঙালি শিল্পীদের

করোনা নিয়ে সচেতনতা এখন সর্বত্র। অনেক মানুষই ঘরবন্দি করে ফেলেছেন নিজেদের। সপ্তাহান্তে আবার ‘জনতা কারফিউ’। গোটা দিন ঘরে বসে কাটানো। এর মধ্যেই রবিবারের জন্য অভিনব উদ্যোগ নিলেন কলকাতার কয়েকজন শিল্পী। সংস্কৃতিপ্রিয় বাঙালির মনোরঞ্জনের সুযোগ এবার ঘরের মধ্যেই। মঞ্চের পারফরমেন্স এবার আসতে চলেছে ইন্টারনেটে।

আরও পড়ুন
বাড়িতে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করে বাজারে বিতরণ, উদ্যোগে ব্যারাকপুরের তরুণরা

রবিবার সারাদিন মাতিয়ে রাখতে কলকাতাতেই অন্তত তিনটে অনুষ্ঠান হতে চলেছে অনলাইন স্ট্রিমিং-এর মাধ্যমে। তার মধ্যে আছে শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের অনুষ্ঠান থেকে নৃত্যানুষ্ঠান বা ছবির প্রদর্শনী। এক নজরে দেখে নিই, কলকাতাবাসীর জন্য কী উপহার দিতে চলেছেন শিল্পীরা।

আরও পড়ুন
বিনামূল্যে রেশন, ৫ লক্ষ টাকার স্বাস্থ্য বিমা – করোনা-রোধে সদর্থক ভূমিকা প্রশাসনের

প্রথমেই যে অনুষ্ঠানের কথা বলতে হয়, পণ্ডিত দেবাশিষ ভট্টাচার্যের শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের অনুষ্ঠান। বলা যায়, এমন উদ্যোগের ভাবনা শুরু এখান থেকেই। গত ১৩ মার্চ, পোল্যান্ডের একটি রেডিও স্টেশন কনসার্টের উদ্যোগ নিয়েছিল। কিন্তু সেখানেও করোনার আতঙ্কে অনুষ্ঠান বাতিল করতে বাধ্য হন কর্তৃপক্ষ। কিন্তু মঞ্চের অনুষ্ঠানকে তাঁরা অনলাইন স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মে নিয়ে আসেন। আর সেই অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলেন পণ্ডিত দেবাশিষ ভট্টাচার্যও। সারা বিশ্বের প্রায় ২২,০০০ শ্রোতা তাঁর দেড়ঘণ্টার অনুষ্ঠানের সাক্ষী থেকেছেন, কিন্তু অনলাইনে। সেখান থেকেই ভাবনাটা আসে তাঁর মাথায়। আর তাই রবিবার দেশব্যাপী কারফিউ-র মধ্যে এমন একটা অনুষ্ঠানের আয়োজনও করে ফেলেছেন তিনি। সারাদিনে তিনটে কনসার্টের পরিকল্পনা আছে তাঁর। সকালে রাগ ভৈরবী, বিকালে সারেঙ্গ, আর রাতে মালকোষ। প্রতিটা কনসার্টের সময়সীমা ৪৫ মিনিট করে। অনুষ্ঠানে তাঁর সঙ্গে তানপুরায় সঙ্গত করবেন পন্ডিতপুত্র সূর্যদীপ্ত, আর তবলায় সঙ্গত করবেন সুধীর ঘোরই। আর এই তিনটে কনসার্টই দর্শকের কাছে পৌঁছে যাবে ফেসবুক লাইভের মাধ্যমে।

আরও পড়ুন
বন্ধ রেস্টুরেন্ট-বার-মিউজিয়াম-চিড়িয়াখানা, জমায়েত এড়াতে সিদ্ধান্ত রাজ্য প্রশাসনের

একই সঙ্গে রবিবার ফেসবুক লাইভে আসতে চলেছেন নৃত্যশিল্পী সোহিনী রায়চৌধুরীও। আর তাঁর সঙ্গে জার্মানির গিটারিস্ট মার্কাস স্মিড। মিলিত নৃত্য-গীতের এই অনুষ্ঠানের নাম তাঁরা দিয়েছেন রাগা-রক্স। ঘরের মধ্যে বসে বসে যেন বাঙালির সাংস্কৃতিক মননে জং না ধরে, তাই এই উদ্যোগ। তবে এই অনুষ্ঠানের থেকে উদ্যোক্তারা কোনো অর্থ উপার্জন করবেন না বলেই জানিয়েছেন। দর্শকদের অনুষ্ঠান ভালো লাগলে তাঁরা ইচ্ছেমতো ডোনেশন দিতে পারেন। সেই সমস্ত অর্থ চলে যাবে 'লিটল বিগ হেল্প' নামের একটি এনজিও-র কাছে। সমাজের অস্বচ্ছল জগৎ থেকে যেসব শিশু জীবনের লড়াইটা লড়তে ছাড়েনি, তাদের জন্যই কাজ করে এই প্রতিষ্ঠানটি। দেশজুড়ে আতঙ্কের মধ্যে তাদের সঙ্গে একটু ভালোবাসার উষ্ণতা ভাগ করে নিতে চাইছেন সোহিনী।

আরও পড়ুন
করোনা-সতর্কতা বাংলাদেশে, স্থগিত বঙ্গবন্ধুর শতবর্ষের অনুষ্ঠান

রবিবার আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ অনুষ্ঠানও মঞ্চ খুঁজে নিতে চলেছে অনলাইন প্ল্যাটফর্মেই। জানাচ্ছেন পারফর্মার-আর্টস ম্যানেজার পারমিতা সাহা। এই অনুষ্ঠান অবশ্য শুধু নৃত্য বা সঙ্গীতের নয়। তার সঙ্গে থাকবে আবৃত্তি। এবং ছবির ও অন্যান্য ভিজুয়াল আর্টের প্রদর্শনী। আর্ট-কারফিউ নামের এই অনুষ্ঠান চলবে সকাল ৭টা থেকে ১৪ ঘণ্টা। আর পুরোটাই হবে একটি ইনস্টাগ্রাম পেজ থেকে। মহামারি তো শুধু ওষুধেই আটকায় না, সঙ্গে প্রয়োজন জনগণের সতঃস্ফুর্ত অংশগ্রহণ। সেই উদ্দেশ্যেই এই অনুষ্ঠান, জানাচ্ছেন পারমিতা সাহা।

আরও পড়ুন
শুধু সাধারণ নাগরিকই নন, নিয়ম ভাঙছেন বিদেশ-ফেরত ডাক্তাররাও, সচেতনতার ঘাটতি সর্বত্র

অনলাইনে এমন অনুষ্ঠান কলকাতায় খুব নতুন নয়। তবে এতদিন সাধারণত উঠতি শিল্পীরাই এই মাধ্যমটি বেছে নিতেন। আর এবার সেই মঞ্চে পা রাখতে চলেছেন রীতিমতো প্রতিষ্ঠিত শিল্পীরাও। সব মিলিয়ে 'তালাবন্ধ' রোববারও যে কলকাতাবাসীর অনুষ্ঠানের অভাব নেই, সেটা বেশ বোঝাই যাচ্ছে। আর সেইসঙ্গে এধরনের অনলাইন প্ল্যাটফর্ম জনপ্রিয় হয়ে উঠলে তো শিল্পের বাণিজ্যিক দিকটাও অনেকটা বদলাবে।

More From Author See More

Latest News See More