আবারও হাতিমৃত্যু ছত্তিসগড়ে, এক সপ্তাহে পাঁচটি হাতির মৃত্যু দেখল ভারত

করোনার প্রকোপ দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে। অন্যদিকে আরও একটি ঘটনা দ্রুতগতিতে বাড়ছে ভারতে। হাতি মৃত্যুর ঘটনা। কেরালার অন্তঃসত্ত্বা হাতির নৃশংস মৃত্যুর ঘটনা এখনও ফিকে হয়ে যায়নি। তার মাঝেই আবারও ঘটে গেল মর্মান্তিক ঘটনা। ছত্তিসগড় দেখল দুটি হাতির মৃত্যু।

খবর অনুযায়ী, ছত্তিসগড়ের রায়গড় এবং ধামতারি জেলায় এই ঘটনা ঘটেছে। রায়গড়ের গিরিশা গ্রামে বিগত বেশ কয়েকদিন ধরেই ২৭টি হাতির একটি দল ঘোরাফেরা করছিল। গ্রামবাসীদের মাধ্যমে বন দফতরও সেই খবর পায়। সেই দলেরই একটি হাতির দেহ মঙ্গলবার সকালে মাঠের মধ্যে দেখতে পান গ্রামবাসীরা। খবর পেয়ে বন দফতরের কর্মীরাও চলে আসেন। বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে হাতিটির মৃত্যু হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। বনকর্মী ও পুলিশের তদন্তে জানা যাচ্ছে, গ্রামেরই এক ব্যক্তি বেআইনিভাবে নিজের ক্ষেতে বিদ্যুতের বন্দোবস্ত করেছিল। কোনোরকমে সেখানে পড়েই বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হয় হাতিটির। 

একইদিনে ধামতারিতেও হাতি মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। তবে এখানে পূর্ণবয়স্ক নয়; শিশু হাতির মৃত্যু ঘটে। ধামতারির গাংরেল রিজার্ভারের একটি কর্দমাক্ত জমিতে পড়ে যায় শিশু হাতিটি। বন দফতরের বক্তব্য, হয়ত তেষ্টার জন্য জল খেতে গিয়ে ওই জায়গায় পড়ে যায় হাতিটি। পরে তার মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। যেহেতু শিশু হাতি, তাই দলে আরও বেশ কিছু ছিল বলে মনে করছেন বনকর্মীরা। 

এইসবের থেকেও বেশি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হিসেবে উঠে আসছে হাতি মৃত্যুর ঘটনা। বিগত এক সপ্তাহে পাঁচটি হাতি মৃত্যুর ঘটনা ঘটল ভারতে। আর সবকটাই ঘটল ছত্তিসগড়ে। এর আগেও তিনটি হাতি মারা গিয়েছিল বলরামপুর ও প্রতাপপুর ফরেস্ট রেঞ্জে। তার আগে কেরালার ঘটনা তো আছেই। এই সম্পূর্ণ পরিসংখ্যানই চিন্তায় রাখছে পরিবেশবিদদের। মানুষের ক্রিয়াকলাপের দিকেও আঙুল তুলছেন তাঁরা। হাতিদের স্বাভাবিক চলার পথ, জীবন ব্যাহত হচ্ছে; এবং তার শিকারও হতে হচ্ছে তাদের। কাজেই এখনই গুরুত্ব না দিলে, বিপদ আরও বাড়বে। 

আরও পড়ুন
বুকের ওপর দিয়ে হেঁটে যেত পূর্ণবয়স্ক হাতি, মারণ খেলার সম্রাজ্ঞী ছিলেন রেবা রক্ষিত

Powered by Froala Editor

আরও পড়ুন
পোষ্য হাতিকেই লিখে দিলেন জমি, ব্যতিক্রমী উইল বিহারের ব্যক্তির

More From Author See More