আগুনেও পুড়বে না এই বিশেষ বই!

বছর চারেক আগের কথা সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো সাড়া ফেলে দিয়েছিল ‘দ্য হ্যান্ডমেইড’স টেল’ ওয়েবসিরিজটি। আদতে যা নির্মিত হয়েছিল কানাডিয়ান লেখিকা মার্গারেট অ্যাটউডের (Margaret Atwood) উপন্যাস ‘হ্যান্ডমেইড’স টেল’-এর (The Handmaid's Tale) ওপর ভিত্তি করে। এবার নিজের লেখা গ্রন্থে ফায়ারগান দিয়ে নিজেই অগ্নিসংযোগ করলেন মার্গারেট! তবে আরও অবাক করার বিষয় হল, যে আগুনের শিখায় ছাই হয়ে যায় সবকিছুই, তাতে আঁচড়টুকুও পড়ল না এই গ্রন্থের গায়ে। 

সম্প্রতি, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পেঙ্গুইন র‍্যান্ডাম হাউসে দেখা গেল এমনই দৃশ্য। নিজের লেখা বইতে এমন অগ্নিসংযোগের কারণ কী? আর কেনই বা পুড়ল না তা? 

বিগত বেশ কয়েক মাস ধরেই সেন্সরশিপ নিয়ে উত্তাল গোটা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। বিগত ৯ মাসের মধ্যে আমেরিকার ২৬টি রাজ্যের ৮৬টি জেলায় স্কুল লাইব্রেরি এবং শ্রেণিকক্ষ থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে মোট ১৮৫৬টি বই। এমনকি কোনো কোনো ক্ষেত্রে বদলে ফেলা হয়েছে স্কুলের সিলেবাস, পাঠ্যপুস্তকও। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এই সেন্সশিপের বিরুদ্ধেই প্রতিবাদ স্বরূপ নিজের গ্রন্থে অগ্নিসংযোগ করার কথা চিন্তা করেছিলেন মার্গারেট। 

তাঁর সেই পরিকল্পনা মাফিকই পেঙ্গুইন থেকে প্রকাশিত হয়েছিল তাঁর লেখা ডেস্টোপিয়ান উপন্যাস ‘দ্য হ্যান্ডমেইডস টেল’-এর অগ্নিপ্রতিরোধী (Unburnable Edition) বিশেষ সংস্করণ। ফেনল-নির্মিত কভার এবং তাপ-প্রতিরোধী ফয়েল পৃষ্ঠায় এই ছাপা বইতেই সম্প্রতি আগুন লাগালেন স্বয়ং লেখিকা। বার্তা দিলেন কোনো গ্রন্থকে নিষিদ্ধ করলেও, তার অস্তিত্ব মুছে যায় না পৃথিবী থেকে। বরং, পাঠক স্বয়ং সেই গ্রন্থের পাঠ্যকে খুঁজে নেন। উল্লেখ্য, তাঁর এই গ্রন্থটি শুধু আমেরিকা নয়, স্পেন, ইতালি, পর্তুগাল-সহ একাধিক দেশে নিষিদ্ধ হয়েছে একাধিকবার। তবে ২০১৭ সালে মুক্তি পাওয়া সিরিজের পর আকাশ ছোঁয় এই গ্রন্থের চাহিদা। মার্গারেটের দাবি, কোন বই ভালো, কোনটা খারাপ তা বিচারের দায়িত্ব দেওয়া হোক পাঠকদেরকেই। একইসঙ্গে তিনি সরব হন, রূঢ় বাস্তবের বিরুদ্ধেও। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে যে সকল বই নিষিদ্ধ হয়েছে তার সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে কোনো না কোনো ঐতিহাসিক ঘটনা। কখনও বর্ণবাদ, লিঙ্গবৈষম্য, রাজনৈতিক বিতর্ক কিংবা হলোকাস্টের মতো ঘটনা বর্ণিত হয়েছে এইসব বইতে; কখনও আবার এইসব বইয়ের লেখক কৃষ্ণাঙ্গ বা প্রান্তিক লিঙ্গ যৌনতার মানুষ হওয়ায় তা নিষিদ্ধ করেছে প্রশাসন। এই সেন্সরশিপ আসল ইতিহাসকে পরবর্তী প্রজন্মের থেকে লুকিয়ে রাখছে, সামনে আনছে এক বিকৃত ইতিহাসের ছবি— অভিযোগ মার্গারেটের। 

আরও পড়ুন
বই কেন ঝাড়ে

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এই গ্রন্থ নিষিদ্ধকরণের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে ‘পিইএন’ আমেরিকা। লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে শ্রেণিকক্ষে ছাত্রছাত্রীদের স্বাধীনতা এবং লেখকদের বাক-স্বাধীনতার জন্য। তাদের এই লড়াইকেই সমর্থন করেই বই পোড়ানোর উদ্যোগ মার্গারেটের। গত পরশু থেকেই নিলামে উঠেছে ‘দ্য হ্যান্ডমেইডস টেল’-এর আনবার্নেবল সংস্করণটি। নিলাম চলবে আগামী ৭ জুন পর্যন্ত। এই সংস্করণ বিক্রির অর্থমূল্যের গোটাটাই ‘পেন আমেরিকা’-র হাতে তুলে দেওয়া হবে বলেই জানাচ্ছেন কিংবদন্তি লেখিকা মার্গারেট অ্যাটউড…

আরও পড়ুন
প্রতিদিন পায়ে হেঁটে বাড়ি-বাড়ি বই পৌঁছে দেন রাধামণি

Powered by Froala Editor

আরও পড়ুন
নিষিদ্ধ বইয়ের জাদুঘর, ইতিহাসের খণ্ডচিত্র ধরে রেখেছে এস্তোনিয়া

More From Author See More

Latest News See More