সূর্যালোকও ছুঁতে পারে না তাকে, বিশ্বের সবচেয়ে দামি চা রয়েছে আসামেই

রোজ সকালে এক কাপ চা না হলে ঘুম ভাঙে না বাঙালির। আর এই বিষয়ে কার্পণ্যও করেন না বেশিরভাগ মানুষই। কিন্তু কত দাম হয় চা পাতার? জানেন কি, সবচেয়ে দামি চায়ের বাজারমূল্য কত? শুনলে অবাক হবেন, সম্প্রতি আসামে নিলামে উঠল একটি বিশেষ ধরণের চা, যার এক কেজির মূল্য দাঁড়াল ৭৫ হাজার টাকা। হ্যাঁ, ৭৫ হাজার টাকা। তবে এটি বাজারমূল্য নয়। পাইকারি দরে ডিব্রুগড়ের চা বাগান থেকে এই চা কিনে নিল বিষ্ণু টি কোম্পানি। ফলে বাজারে যখন সেটা আসবে, দাম হবে আরও বেশি।

দাম শুনে অবাক হওয়ার পরেই প্রশ্ন আসে, কী আছে এই চায়ের মধ্যে? তারও উত্তর দিলেন গুয়াহাটি টি অকশন সেন্টারের কর্তারা। ডিব্রুগড় জেলার মনোহরী চা বাগানের সূত্রে জানানো হয়েছে, ভোরের আলো ফোটার আগেই প্রতিদিন সংগ্রহ করা হয় এই চায়ের কুঁড়ি। ফলে তাতে সূর্যালোক লাগে না। চায়ের স্বাদ, গন্ধ এবং বর্ণ; সবই হয় ‘সোনার মতো’। আর তাই এই বিশেষ জাতের চায়ের নাম রাখা হয়েছে মনোহরী গোল্ড। অবশ্য বাজারে এই চা প্রথমবার এল না। গতবছর নিলামে এর দাম উঠেছিল ৫০ হাজার টাকা। আর এবছর করোনা পরিস্থিতিতে অর্থনৈতিক সংকটের মুহূর্তেও যে এই চায়ের চাহিদা বেড়েছে, তাতে স্বাভাবিকভাবেই খুশি চা বাগান কর্তৃপক্ষ।

চলতি বছরেই আগস্ট মাসে আসামের দিকম চা বাগানের ‘গোল্ডেন বাটারফ্লাই’ চা বিক্রি হয়েছে ৭৫ হাজার টাকা প্রতি কেজি মূল্যে। সেই রেকর্ড ভাঙতে না পারলেও এবার তার সমকক্ষ হয়ে উঠল আসামেরই আরও একটি চা। আর সারা পৃথিবীতে সবচেয়ে দামি চায়ের আসরে দার্জিলিং-কেও টেক্কা দিল আসাম।

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More