প্রয়াত প্রবাদপ্রতিম সঙ্গীতশিল্পী পণ্ডিত যশরাজ, সাংস্কৃতিক জগতে শোকের ছায়া

একের পর এক দুঃসংবাদের মাঝে আবারও এল এক মর্মান্তিক মৃত্যু সংবাদ। ভারতীয় শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের জনপ্রিয় শিল্পী পণ্ডিত যশরাজ মারা গেলেন ৯০ বছর বয়সে। সোমবার বিকালে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের সূত্রে তাঁর মৃত্যুর খবর জানা যায়।

১৯৩০ সালে হরিয়ানার একটি গ্রামে জন্ম যশরাজের। পরিবারের প্রত্যেকেই শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। পিতা মতিরাম পণ্ডিত নেটিভ রাজাদের কাছ জনপ্রিয় ছিলেন। কিন্তু মাত্র ৪ বছর বয়সেই পিতৃহারা হন যশরাজ। বড় হয়েছেন দুই দাদার তত্ত্বাবধানে। শৈশব কেটেছে হায়াদ্রাবাদ্রে। সেখানে মীর ওসমান আলি খানের কাছে সঙ্গীত শিক্ষার শুরু। এরপর গুজরাটে পরিচিত হলেন মেওয়াটি ঘরানা সঙ্গে।

মেওয়াটি ঘরানার জনপ্রিয় শিল্পী ছিলেন পণ্ডিত যশরাজ। পাশাপাশি তাঁর যোগাযোগ ছিল আধুনিক ঘরানার শিল্পীদের সঙ্গেও। ১৯৬২ সাল পরিচালক ভি. সন্তারামের কন্যা মধুরা সন্তারামের সঙ্গে বিবাহ হয় তাঁর। দাম্পত্য জীবনের শুরু কলকাতা শহরে। এর পরের বছর চলে যান মুম্বই। মেওয়াটি ঘরানার চিরাচরিত রীতির পাশাপাশি অনেক পরীক্ষানিরীক্ষার কাজও করেছেন তিনি। যুগলবন্দী সঙ্গীতের যশরঙ্গী ঘরানার জন্ম তাঁর হাতেই। পাশাপাশি হাভেলি সঙ্গীত ও অন্যান্য সেমি-ক্লাসিক্যাল ঘরানাতেও প্রতিভার পরিচয় রেখেছেন তিনি। শিল্পীর বর্ণময় জীবন নিয়ে ২০০৯ সালে ‘সঙ্গীত মার্ত্যণ্ড পণ্ডিত যশরাজ’ নামে একটি চলচ্চিত্র তোইরি করেন তাঁর পত্নী মধুরা।

সারা জীবনে অসংখ্য পুরস্কার ও সম্মান পেয়েছেন তিনি। তিনটি পদ্ম-পুরস্কারই লাভ করেছেন। ১৯৭৫ সালে পদ্মশ্রী, ১৯৯০ সালে পদ্মভূষণ এবং ২০০০ সালে পদ্ম-বিভূষণ লাভ করেন তিনি। এছাড়াও পেয়েছেন সঙ্গীত-নাটক অ্যাকাডেমি সহ দেশবিদেশের নানা পুরস্কার। মঙ্গল এবং বৃহস্পতির মাঝে একটি বামন গ্রহের নামও রাখা হয় তাঁর নামে।

আরও পড়ুন
চলে গেলেন প্রখ্যাত নাট্যব্যক্তিত্ব ইব্রাহিম আলকাজি, ভারতীয় থিয়েটার হারাল এক অভিভাবককে

সোমবার আমেরিকার নিউ-জার্সি শহরে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তাঁর মৃত্যুর সংবাদে শোকের ছায়া নেমেছে দেশের সংস্কৃতি জগতে।

আরও পড়ুন
চলে গেলেন বাংলাদেশের 'প্লেব্যাক সম্রাট' এন্ড্রু কিশোর, শোকাহত অসংখ্য অনুরাগী

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More