চলে গেলেন বলিউডের 'মাস্টারজি', সরোজ খানের মৃত্যুতে শোকের ছায়া

ঋষি কাপুর, ইরফান খান, ওয়াজিদ খান এবং তারপরেই সুশান্ত সিং রাজপুত, শোকের ধাক্কা সামলে বলিউড আবার তার নিজস্ব ছন্দে ফিরে আসার আগেই হারাল আরেক সদস্যকে। বৃহস্পতিবার রাতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন বলিউডের 'মাস্টারজি' সরোজ খান। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭১ বছর।

সরোজ খান বললেই মনে আসে অসংখ্য জনপ্রিয় ছবির নাচের দৃশ্য। দেবদাস সিনেমায় 'দোলা রে দোলা' গানে মাধুরী দীক্ষিতের নাচের দৃশ্য তো রীতিমতো কিংবদন্তির পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছে। সেই ঐতিহাসিক কোরিওগ্রাফির জন্য জাতীয় পুরস্কারও পেয়েছিলেন তিনি। এছাড়া 'ধক ধক করনে লাগা' গানের সাহসী স্টেপস, 'হাওয়া হাওয়াই' গানে নতুনত্বের ছোঁয়া, সবেতেই শিল্পীর কীর্তি অক্ষয় হয়ে আছে। জাতীয় পুরস্কার পেয়েছেন আরও দুবার। বলিউডের এমন কোনো শিল্পীই হয়তো নেই, জীবনে একবার অন্তত যিনি সরোজ খানের সঙ্গে কাজ করেননি অথবা কাজ করার স্বপ্ন দেখেননি। তাঁর হাত ধরেই বলিউডের ফ্লোরে পা রেখেছেন বহু শিল্পী। তাই ইন্ডাস্ট্রি যে একজন প্রকৃত অভিভাবককে হারাল, তাতে সন্দেহ নেই।

১৯৪৮ সালে দেশভাগের পরিস্থিতিতে জন্ম সরোজ খানের। তারপর জীবনে বহু লড়াই করে প্রতিষ্ঠিত হয়ে উঠেছেন। আর সবটার সঙ্গেই জড়িয়ে আছে বলিউড। সেই ৩ বছর বয়সে 'নজরানা' সিনেমা থেকেই যে যোগাযোগের শুরু। এরপর বি সোহানলালের কাছে নাচ শেখা এবং ১৩ বছর বয়সে তাঁর সঙ্গেই বিয়ে, বাকি জীবনটার সঙ্গে তাই জড়িয়ে থেকেছে নাচ, এবং বলিউড।

গত ২০ জুন তারিখে শ্বাসকষ্ট জনিত কারণে বান্দ্রার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন সরোজ খান। স্বাভাবিকভাবেই করোনা সংক্রমণের ভয় ছিল সকলের মনেই। কিন্তু টেস্ট রিপোর্ট নেগেটিভ আসায় খানিকটা আশ্বস্ত হয়েছিলেন পরিবারের লোকজন। চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে থেকে ক্রমশ সুস্থও হয়ে উঠছিলেন। আর কিছুদিনের মধ্যেই হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফেরার কথাও চলছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আর বাড়ি ফেরা হল না। সেইসঙ্গে ইতি ঘটল এক ঐতিহাসিক অধ্যায়ের। শুধু থেকে গেল তাঁর অসংখ্য জনপ্রিয় কোরিওগ্রাফি। গতবছরেও করণ জোহরের 'কলংক' সিনেমায় মাধুরী দীক্ষিতের নাচের দৃশ্য তৈরি করে দর্শকের মন কেড়ে নিয়েছিলেন তিনি। আজ আবার সেইসব দৃশ্যই রিউইন্ড করার সময়। এইসব দৃশ্যের মধ্যেই তো বেঁচে থাকবেন মাস্টারজি।

আরও পড়ুন
প্রয়াত অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত, মৃত্যুর কারণ আত্মহত্যা!

Powered by Froala Editor