এবার সিনেমার পর্দায় ‘শক্তিমান’, ভারতের প্রথম সুপারহিরোকে ঘিরে উন্মাদনা তুঙ্গে

নব্বইয়ের দশক। ‘সুপারহিরো’ ব্যাপারটা কী? তখনও ঠিক জানে না ভারতের দর্শক, তরুণ প্রজন্ম। ভারত তো দূরের কথা মার্ভেল কিংবা ডিসি তখনও সেভাবে জুত করে উঠতে পারেনি বিশ্বব্যাপী বক্স-অফিসে। সেই সময় একটা অন্যরকমের ক্যারিশমা ছিল প্রতিটা রোববারের। শিশু, কিশোর থেকে তরুণরাও এক অদ্ভুত অপেক্ষায় বসে থাকত টিভির সামনে। উদ্দেশ্য দূরদর্শন ১-এর একটি অনুষ্ঠানকে দেখা। শক্তিমান। সকাল ১২টা বাজলেই লাট্টুর মতো ঘুরতে ঘুরতে স্ক্রিনে আবির্ভূত হতেন সেই অতিমানব। এবার আবার পর্দায় ফিরতে চলেছে সেই নস্টালজিয়া মাখা চরিত্র।

তবে এবার আর টেলিভিশন নয়। শক্তিমানকে দেখা যাবে সেলুলয়েডের পর্দায়। আসতে চলেছে শক্তিমানকে নিয়ে তিন-তিনটি সিনেমার ট্রিলজি। পরের বছর অর্থাৎ ২০২১ সাল থেকেই শুরু হচ্ছে তার শুটিংয়ের কাজ। সম্প্রতি এমনটাই জানালেন শক্তিমান নিজেই অর্থাৎ অভিনেতা মুকেশ খান্না। অন্যান্য বহু চরিত্রে অভিনয় করলেও নব্বইয়ের ছেলে-মেয়েদের কাছে যিনি সমার্থক হয়ে গেছেন শক্তিমানের সঙ্গে। 

১৯৯৭ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর থেকে দূরদর্শনে শুরু হয়েছিল এই জনপ্রিয় টিভি শো। ২০০৫ সাল অবধি প্রতি রবিবার করে ধারাবাহিকবাহেই প্রকাশিত হয়েছিল এক একটি পর্ব। তারপর বন্ধ হয়ে যায় অনুষ্ঠানটি। প্রতি এপিসোডেই শিশুদের জন্য কিছু না কিছু উপদেশমূলক কথা থাকতই এই অতিমানবের সংলাপে। ফলে মুকেশ খান্না নিজেও চরিত্রটিকে ‘সুপার টিচার’ বলে অভিহিত করেন সম্প্রতি। 

অনুষ্ঠান বন্ধ হয়ে যাওয়ার এত বছর পরেও শক্তিমান, গঙ্গাধর, গীতা, কিলবিশ প্রভৃতি চরিত্রগুলো অমলিন নব্বইয়ের প্রজন্মের কাছে। তবে সমসাময়িক পরিস্থিতিকে মাথায় রেখেই সিনেমার প্রেক্ষাপট তৈরি করা হচ্ছে বলেই জানিয়েছেন মুখেশ খান্না। সেই স্বার্থে কী কী বদল হবে সিনেমায়? শক্তিমানের সেই ঘুরতে থাকার আইকনিক মুভমেন্টটা বাস্তবিক করে তোলার খাতিরে কি বাদ পড়বে? গীতা, কিলবিশদেরও দেখা যাবে? নাকি জায়গা নেবে অন্য কোনো নতুন চরিত্র? দর্শকদের মনে এখন ঘুরছে এইসব প্রশ্নই। সব মিলিয়ে শক্তিমানের সেই নস্টালজিয়া দর্শকদের মধ্যে আবার ফিরিয়ে এনেছে নব্বইয়ের অধীর অপেক্ষাকে...

আরও পড়ুন
ফিরছে ‘সুপার মারিও’, ৩৫ বছর পূর্তিতে উদ্যোগ জাপানে

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More

avcılar escortbahçeşehir escortdeneme bonusu veren sitelerbahis siteleri