প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ মহিলা মহাকাশচারী হিসেবে আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে জেসিকা

প্রায় দেড় বছরব্যাপী ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার আন্দোলন আমেরিকার বহু ক্ষেত্রেই পরিবর্তন এনেছে। বর্ণবৈষম্যের বিরুদ্ধে সোচ্চার সমস্ত স্তরের মানুষ। আর এবার আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে পা রাখতে চলেছেন নাসার মহাকাশচারী জেসিকা ওয়াটকিনস (Jessica Watkins)। এই প্রথম কোনো কৃষ্ণাঙ্গ মহিলা (Woman of Colour) পা রাখবেন আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে। সম্প্রতি নাসার সূত্রে জানানো হয়েছে এমনটাই।

২০২২ সালের এপ্রিল মাসেই রওয়ানা দেবে স্পেস-এক্স সংস্থার চতুর্থ ক্রিউ মিশন। এই পরিকল্পনার সঙ্গে জড়িয়ে আছে নাসাও। ফ্লোরিডার মেরি দ্বীপে অবস্থিত নাসার কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে রওয়ানা হবে স্পেস-এক্স-এর ফ্যালকন-৯ রকেটটি। আর তাতেই যাত্রা করবেন নাসার ৩ মহাকাশচারী এবং ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সির একজন মহাকাশচারী। নাসার পক্ষ থেকে জেসিকা ওয়াটকিনসের সঙ্গে রয়েছেন কেল লিন্ডগ্রেন এবং রবার্ট হাইনস। অন্যদিকে ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সির পক্ষ থেকে থাকবেন সামানথা ক্রিস্টোফোরেটি। স্পেস স্টেশনে পৌঁছে সেখানে ৬ মাস কাটাবেন ৪ মহাকাশচারী। এই ৬ মাসে নানারকম গবেষণার পরিকল্পনা রয়েছে তাঁদের।

ক্যালিফোর্নিয়ার স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটি থেকে ভূতত্ত্ব নিয়ে স্নাতক জেসিকা। এরপর ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়া থেকে ডক্টরেট ডিগ্রি নিয়ে নাসায় ইনটার্ন হিসাবে যোগ দিয়েছিলেন তিনি। ২০১৭ সাল থেকে নাসার সঙ্গে স্থায়ীভাবে যুক্ত তিনি। এর মধ্যে মঙ্গলগ্রহে নাসার কিউরিওসিটি রোভারের দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি আরও বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ কাজও করেছেন। তবে মহাকাশচারী হিসাবে যুক্ত হলেও এর আগে মহাকাশে পা রাখার অভিজ্ঞতা তাঁর হয়নি। ইতিমধ্যে আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশন থেকে সেখানকার গবেষকরা স্বাগত জানিয়েছেন জেসিকাকে।

আমেরিকার অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের মতোই নাসার বিরুদ্ধেও বর্ণবৈষম্যের অভিযোগ উঠেছে বহুবার। তবে এর মধ্যেই বহু মানুষ অক্লান্ত পরিশ্রম করে গিয়েছেন এই বর্ণবৈষম্য ঘোচাতে। ডঃ বার্নার্ড হ্যারিস জুনিয়র দীর্ঘদিন ধরে কৃষ্ণাঙ্গ মহাকাশচারীদের একটি দল তৈরি করার পরিকল্পনা করে গিয়েছেন। তবে ১৯৯৫ সালে তিনি নিজে মহাকাশে পা রাখলেও তাঁর স্বপ্ন পূর্ণ হয়নি। ১৯৯২ সালে নাসার প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ মহিলা মহাকাশচারী হিসাবে রওয়ানা হয়েছিলেন ডঃ মায়ে জেমিশন। তবে মহাকাশযানের বাইরে পা পড়েনি তাঁর। সেই ইতিহাস ধরেই এবার প্রথমবার স্পেস স্টেশনে পা রাখতে চলেছেন জেসিকা। ইতিহাস তৈরির অপেক্ষায় নাসা।

আরও পড়ুন
কৃষ্ণাঙ্গ হওয়ায় কটূক্তি, ফেয়ারনেস ক্রিমের বিরুদ্ধে লড়াই শুরু মার্কিনির

Powered by Froala Editor

আরও পড়ুন
মহাকাশে ভেসে বেড়াচ্ছে ভয়ংকর বর্জ্য, বিঘ্নিত হতে পারে মানবজীবনও

More From Author See More