চিনেভাষায় 'খেলা হবে', ভোটের দেওয়াল জুড়ে 'চিনে কলকাতা'

তৌ গেই জিয়াওয়েদ হান! (投给贾维德•汗)
“জাভেদ খাঁ কে ভোট দিন!”

এই লেখায় ভরে গিয়েছে তপসিয়া অঞ্চল। সাদা দেওয়ালে বিভিন্ন কালিতে চিনা অক্ষর! চিনেপাড়া সেজে উঠেছে ভোট উৎসবে। কিন্তু এমন লেখা লিখল কে? দুপুর রোদে ট্যাংরা জনমানব শূন্য। খবরই হিসেবে দোকানদার কিংবা রিকশাওয়ালাই ভরসা। মান্দারিন চিনায় একের পর এক দেওয়াল লিখন ধরে পার্টি অফিস খোঁজা। একটার পর একটা অফিসে তালা। ঠা ঠা দুপুর। শাসক দলের আঞ্চলিক কর্মীরা সকলেই বিশ্রামে। দেওয়ালে দেওয়ালে নরেন্দ্র মোদির ব্যঙ্গচিত্র। তার পাশে মমতা বন্দোপাধ্যায়ের ভাঙা পায়ের ছবি। অবশ্য সেখানে পরিষ্কার বাংলায় ‘খেলা হবে।’ তার পাশেই আবার সারি সারি চিনা হরফ!

“জিয়েজিয়ে কুয়াই দিয়েন হাও চিলাই” ( 姐姐快点好起来)
“সেরে উঠুন দিদি!”

আরও পড়ুন
ক্রিকেট খেলতে শিখেছেন চিনা ভাষা, অবনীন্দ্রনাথের প্রহার লজ্জা দিয়েছে বার্ধক্যেও

চিনা ভাষায় শুভেচ্ছাবার্তা! এবারে খোঁজ লাগাতেই হবে। এই দেওয়াললিখন কার পরিকল্পনা? কোথাও এর নির্ঘাৎ একটা সূত্র পাওয়া যাবে। একজন রিক্সাওয়ালা বিড়ির ফাঁকে কাঠফাটা হেসে বললেন, “মেন পার্টি অফিসে খোঁজ নিন! ওখানেই খোঁজ পেতে পারেন।” হনহনিয়ে চায়নাটাউন ছাড়িয়ে এগোতে থাকি। ‘শিমলা বিরিয়ানি’র উল্টোদিকে শাসকদলের তপসিয়া অঞ্চলের মেন অফিস। যেখানে বসেন বিধায়ক প্রার্থী জাভেদ খাঁ-র পুত্র, ৬৬ নম্বর ওয়ার্ডের পৌরপ্রধান ফৈয়াজ আহমেদ খাঁ। কথা হচ্ছিল তাঁর সঙ্গেই। 

আরও পড়ুন
দেবীকে ভোগ দেওয়া হয় চাউমিন, কলকাতার বুকেই রয়েছে এই চিনা কালীমন্দির

ফৈয়াজ বলছিলেন, “দেখুন, এই জায়গাটা আসলে মিনি ইন্ডিয়া! কারণ এখানে বিভিন্ন ধর্ম এবং গোষ্ঠীর মানুষরা বসবাস করেন। বাঙালি, বিহারি, গুজরাটি থেকে চিনা বংশজাত। বিভিন্ন ধর্মের শান্তিপূর্ন অবস্থানও বলা চলে। অনেকের ধারণা, তপসিয়া মুসলিম প্রধান এলাকা। ব্যাপারটা একেবারেই তা নয়। বৌদ্ধ চিনারা, ক্রিশ্চান চিনারা রয়েছেন বহু বছর ধরে। এলাকার বাসিন্দারা শাসকদলের পদক্ষেপ নিয়ে উচ্ছসিত। এবং এই দলকেই আবার ক্ষমতায় দেখতে চান। তাই ওখানকার কর্মীরাই এক্কেবারে স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে দেওয়াল সাজিয়েছেন। আমরা চেষ্টা করছি, এই হরফের সহায়তায় সকলের কাছেই বার্তা পৌঁছে দেওয়ার! এমনকি দিদি তখন নন্দীগ্রামে আহত হন, তখন ওঁরা লিখলেন “গেট ওয়েল সুন!...”

তবে এই দেয়াল লিখনের মাধ্যমে নিঃসন্দেহে একটি নজির তৈরি হল। আরও অনেক নাটকীয়তার পাশাপাশি, আসন্ন নির্বাচন যে আরও এক কারণে বিশেষ হয়ে উঠল, তা বলার অপেক্ষা রাখে না...

আরও পড়ুন
করোনার পর আরও এক চিনা ভাইরাস, ছড়াতে পারে মহামারীও : আইসিএমআর

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More