স্থিতিশীল উন্নয়ন গড়ে তুলতে জাতিপুঞ্জকে পথ দেখাবেন বাঙালিনী

পরিবেশ দূষণ থেকে শুরু করে একাধিক সমস্যায় জর্জরিত সারা পৃথিবীর অর্থনীতি। আর তার মধ্যেই শেষ বড়ো আঘাত এনে দিল করোনা অতিমারী। এই পরিস্থিতিতে আশু কর্তব্য স্থির করতে জাতিপুঞ্জ তৈরি করল নিজস্ব উপদেষ্টা কমিটি। আর জাতিপুঞ্জের সেই কমিটির তালিকায় রয়েছেন একজন বাঙালিও। আমেরিকা প্রবাসী অর্থনীতিবিদ জয়তী ঘোষ রয়েছেন সেই উপদেষ্টাদের মধ্যেই।

অর্থনীতির ক্ষেত্রে বাঙালির অবদান নতুন নয়। অমর্ত্য সেন, অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ আমাদের দেখিয়েছেন কীভাবে স্থিতিশীল উন্নয়নের রাস্তা তৈরি করা যায়। আর এই সঙ্কটের সময় সেটাই সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন। অদূরদর্শী উন্নয়নের কোপে প্রাকৃতিক পরিবেশের অনেকটাই হারিয়ে ফেলেছি। আর বেশি ক্ষতি হলে মানুষের অস্তিত্বই বিপন্ন হবে। আর এই উদ্দেশ্যেই ২০১৮ সালে তৈরি হয় ইউএন ডিপার্টমেন্ট অফ ইকোনমিক অ্যান্ড স্যোসাল অ্যাফেয়ার্স। এবছর সেই উপদেষ্টা কমিটিতেই সদস্যপদ পেলেন জয়তী ঘোষ।

দিল্লির জওহরলাল ইউনিভার্সিটির ছাত্রী জয়তী ঘোষ গবেষণার জন্য পাড়ি দিয়েছিলেন কেমব্রিজ ইউনিভার্সিটিতে। তারপর জওহরলাল নেহেরু সহ ইউরোপ-আমেরিকার নানা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করেছেন। বর্তমানে ম্যাসাচুসেট ইউনিভার্সিটির অধ্যাপিকা তিনি। তাঁর বেশ কিছু মৌলিক গবেষণা পরিবেশ ও অর্থনীতির দ্বন্দ্বের মীমাংসার পথ দেখায়। আর সেই পথেই হাঁটতে চাইছে জাতিপুঞ্জ। জয়তী ঘোষের এই মনোনয়ন যে আন্তর্জাতিক স্তরে বাঙালির সম্মান আরও অনেকটাই বাড়িয়ে দিল, সে-কথা বলাই বাহুল্য।

Powered by Froala Editor