পৃথিবীর চেয়েও জলের পরিমাণ বেশি এই গ্রহে!

রুক্ষ পাথুরে মাটি নয়, বরং আকাশে জমে আছে পেঁজা তুলোর মতো মেঘ। সৌরজগতের বাইরে সম্প্রতি এমনই এক নতুন গ্রহের সন্ধান পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সির কিওপস স্যাটেলাইটে ধরা পড়েছে সেই দৃশ্য। খুব দূরে নয়, পৃথিবী থেকে মাত্র ৫০ আলোকবর্ষ দূরেই রয়েছে নতুন আবিষ্কৃত এই গ্রহ। আর এমন একটা আবিষ্কারকে ঘিরে যে সারা পৃথিবীর বিজ্ঞানীরাই রীতিমতো উত্তেজিত, সে-কথা বলাই বাহুল্য।

লুপাস নক্ষত্র মণ্ডলের এনইউ-২ লুপি নক্ষত্রের কথা বিজ্ঞানীরা আগে থেকেই জানতেন। কিন্তু তাঁদের ধারণা ছিল, সেখানে রয়েছে মাত্র দুটি গ্রহ। ‘বি’ এবং ‘সি’ অক্ষর দিয়ে চিহ্নিত করা হয়েছিল এই দুই গ্রহকে। কিওপস স্যাটেলাইটের সাম্প্রতিকতম ছবিতে ধরা পড়ল আরও একটি গ্রহের অস্তিত্ব। আর এর আকারের সঙ্গেও পৃথিবীর আকারের যথেষ্ট মিল রয়েছে বলেই জানাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। ‘ডি’ অক্ষর দিয়ে চিহ্নিত এই তৃতীয় গ্রহটি পৃথিবীর চেয়ে একটু বড়ো এবং নেপচুনের চেয়ে একটু ছোটো। আর এই গ্রহের এক বছরের দৈর্ঘ্যও ১০০ দিনের চেয়ে বেশি।

ইএসএ-র পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, পূর্বে আবিষ্কৃত দুটি গ্রহে বছরের দৈর্ঘ্য ছিল ১১.৬ এবং ২৭.৬ দিন। আর এই তৃতীয় গ্রহে সেই দৈর্ঘ্য ১০৭.৬ দিন। শুধু তাই নয়, এখানে পৃথিবীর মোট জলের তুলনায় প্রায় তিনগুণ বেশি জল রয়েছে বলেও প্রাথমিকভাবে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা। অর্থাৎ প্রায় গোটা গ্রহটিই জল দিয়ে তৈরি। তবে সেই জল তরল অবস্থায় নেই। হয় প্রবল চাপে জমে বরফ হয়ে রয়েছে, অথবা প্রবল উষ্ণতায় জলীয় বাষ্পে পরিণত হয়েছে। ফলে জলের অস্তিত্ব সত্ত্বেও যে প্রাণধারণের উপযুক্ত পরিবেশ নেই, সে-কথা বলাই বাহুল্য। তবে এর থেকে গ্রহের বিবর্তন সংক্রান্ত নানা তথ্য জানা যেতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। অবশ্য তার জন্য আরও গবেষণার প্রয়োজন। আপাতত একটিমাত্র ছবিই বিজ্ঞানীদের সম্বল।

Powered by Froala Editor

আরও পড়ুন
১৭১৫টি বসবাসযোগ্য গ্রহ থেকে দৃশ্যমান পৃথিবী, ইঙ্গিত ভিনগ্রহীদের দিকেই?

More From Author See More

Latest News See More