লকডাউনের ফলে শিয়রে শমন, অসংখ্য কর্মী ছাঁটতে চলেছে টাটা গোষ্ঠী

মহামারীর দোসর হয়ে এসেছে অর্থনৈতিক দুরাবস্থা। এর শিকার এদেশের সংস্থাগুলিও। লকডাউনের মধ্যে উৎপাদন বন্ধ, বিপণনের আশাও নেই খুব বেশি। ফলে অপ্রয়োজনীয় খরচ বন্ধ করতে কর্মী ছাঁটাইয়ের দিকে হাঁটছেন অনেকেই। সেই তালিকায় এবার যুক্ত হল টাটা লিমিটেডের নামও।

স্বাধীনতার সময় থেকেই ভারতের শিল্পপ্রতিষ্ঠান বলতেই প্রথম যে সংস্থার নাম মাথায় আসে, সেটা অবশ্যই টাটা। টাটা শুধু একটি বাণিজ্যিক সংস্থা নয়, আজও ভারতীয় অর্থনীতির এক মহীরুহ টাটা। কিন্তু লকডাউনের ফলে কোম্পানির নানা বিভাগের ব্যবসা যথেষ্ট ক্ষতির মুখে পড়েছে। আর সেই ঘাটতি মেটাতে ইতিমধ্যে হাজারের উপর কর্মী ছাঁটাই করেছে টাটা। এবং কয়েকদিনের মধ্যেই আরও অনেক কর্মচারী ছঁটাইয়ের নোটিশ পেতে চলেছেন।

কেমিক্যাল, রিয়্যাল এস্টেট, ফুড প্রসেসিং সহ সমস্ত ক্ষেত্রেই লোকসানের মুখ দেখেছে টাটা। আর সৌজন্যে অবশ্যই লকডাউন। তবে এই সময়ে সবচেয়ে বেশি লোকসান হয়েছে টাটা মোটর্সের। অন্যতম লাভজনক এই সংস্থাটির বার্ষিক গড় লাভের পরিমাণের চেয়ে চলতি বছরে ক্ষতির পরিমাণ অনেকটাই বেশি। আর এই তাই টাটা মোটর্স, বিশেষ করে জাগুয়ার ল্যান্ড রোভার কারখানার কর্মচারীদের আশঙ্কা সবচেয়ে বেশি।

যদিও লকডাউনের শুরুতেই কোম্পানির কর্ণধার রতন টাটা জানিয়ে দিয়েছিলেন, কোনো পরিস্থিতিতেই কর্মী ছাঁটাইয়ের পথে হাঁটবে না কোম্পানি। এমনকি লোকসানের আশঙ্কায় কোম্পানির সম্পত্তিও বিক্রি করা হবে না বলে জানিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু পরিস্থিতির চাপে শেষ পর্যন্ত প্রতিশ্রুতি রক্ষা করা সম্ভব হচ্ছে না বলেই জানিয়েছেন তিনি। আর এই অর্থনৈতিক মন্দার বোঝা যে সমাজের খেটে খাওয়া মানুষকেই নিতে হবে। ইতিমধ্যে সারা দেশে ১২ কোটির বেশি মানুষ কর্মসংস্থান হারিয়েছেন। সেই তালিকাতেই আরও কিছু নাম যোগ করতে চলেছে টাটা লিমিটেড। লকডাউনের দিনগুলো পেরিয়ে গেলেও এরপর বাড়িতে খাবারের সংস্থান হবে কীভাবে, চিন্তিত কাজ হারানো মানুষরা।

আরও পড়ুন
৮৪ বছরের ব্যবসায় ইতি, পরাজয় স্বীকার ক্যামেরা কোম্পানি অলিম্পাসের

Powered by Froala Editor

আরও পড়ুন
কর্মীছাঁটাই-এর পথে হাঁটছে কগনিজেন্টও? তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থার পদক্ষেপে সিঁদুরে মেঘ

More From Author See More

Latest News See More