লকডাউনে আত্মহত্যার সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে ৬৭.৭ শতাংশ : আন্তর্জাতিক রিপোর্ট

গত মার্চ মাস থেকেই করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের জন্য ঘোষণা হয়েছিল লকডাউনের। ধীরে ধীরে মেয়াদ বেড়েছে তার। একদিকে যেমন আর্থিক ব্যবস্থাকে প্রভাবিত করেছিল লকডাউন, তেমনই সামাজিক ও ব্যক্তিগত জীবনেও বড়ো-সড়ো পরিবর্তন এনে দিয়েছে নিও-নর্মাল সময়। সাম্প্রতিক রিপোর্টে সামনে এল তেমনটাই। ইন্টারন্যাশনাল জার্নাল অফ মেন্টাল হেলথ সিস্টেমসের গবেষণা জানাল লকডাউনের আবহে ভারতে ৬৭.৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে আত্মহননের সংখ্যা।

আন্তর্জাতিক পত্রিকাটির প্রতিবেদনে উল্লেখিত হয়েছে, দু’বছর আগে আত্মহত্যার দৈনিক গড় ভারতে ছিল ২২০। লকডাউনে তা গিয়ে পৌঁছেছে ৩৬৯-এ। তবে আরও বড় চাঞ্চল্যকর দাবি করে আন্তর্জাতিক সংস্থাটি। এর বাইরেও এমন অনেক আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে দেশে, যা সামনে আসেনি দেশের সংবাদমাধ্যম এবং প্রশাসনের কাছে। এমনটাই জানাচ্ছে সমীক্ষা।

সমীক্ষায় বলা হয়েছে, ভারতীয়দের মধ্যে পুরুষদের ক্ষেত্রে আত্মহত্যার প্রবণতা বেড়েছে ২৪.৩ শতাংশ এবং মহিলাদের ক্ষেত্রে তা বৃদ্ধি পেয়েছে ৩৬.৬ শতাংশ। দেখা গেছে ৩১ থেকে ৫০ বছর বয়সীরাই সবথেকে আত্মহত্যাপ্রবণ। কারণ হিসাবে প্রথমেই উঠে আসছে একাকিত্ব। নিও-নর্মাল সময়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্নতা মানুষকে পরোক্ষভাবে মানসিক অবসাদের মধ্যে ঠেলে দিচ্ছে বলেই ধারণা করছেন বিশেষজ্ঞরা। সেইসঙ্গে লকডাউনে অর্থনৈতিক চাপও একটি বড় কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। অনেকেই কাজ হারিয়েছেন মহামারীর আবহে। আর সেই কারণেই চাকুরিজীবী এবং বিবাহিতদের মধ্যেই সব থেকে বেশি দেখা গেছে আত্মহত্যার ঘটনা।

তবে আজ থেকে প্রায় একশো বছর আগেও এমনটাই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল আরেক মহামারীর সময়। সমীক্ষায় উল্লেখিত হয়েছে শতাব্দীপ্রাচীন সেই রিপোর্টও। ১৯১৮ সাকে স্প্যানিশ ইনফ্লুয়েঞ্জা মহামারীর সময় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে হঠাৎ বেড়ে গিয়েছিল আত্মহত্যার সংখ্যা। সামাজিক ব্যবস্থা ভেঙে পড়া এবং স্বাস্থ্যসেবা সীমাবদ্ধ হয়ে পড়াই ছিল তার অন্যতম কারণ। পরবর্তী সময়ে সার্স কিংবা মার্সের সময়ও পৃথিবীব্যাপি বিভিন্ন দেশে একইরকম ঘটনা নজরে এসেছিল বিশেষজ্ঞদের। তবে করোনাভাইরাসের মহামারী বিগত সব রেকর্ডকেই ছাপিয়ে গেছে। 

বলাইবাহুল্য, আত্মহননের পরিসংখ্যানের বিচারে পৃথিবীতে প্রথমেই রয়েছে ভারতের নাম। ঘন-জনসংখ্যার কারণে ঘটনার সংখ্যা যেমন আকাশ ছুঁয়েছে, তেমনই তৃতীয় বিশ্বের দেশ হওয়ার দরুন প্রয়োজনীয় প্রশাসনিক ব্যবস্থাতেও যথেষ্ট ঘাটতি রয়েছে বলে দাবি করেছে আন্তর্জাতিক সংস্থাটি। আত্মহত্যা প্রতিরোধের জন্য অবিলম্বে উপযুক্ত পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য তাঁরা আবেদন জানিয়েছেন ভারত সরকারের কাছে। কিন্তু এসবের পরেও পরিস্থিতি ঠিক কতটা উন্নত হবে, তা নিয়ে থেকেই যাচ্ছে সন্দেহ...

Powered by Froala Editor

আরও পড়ুন
দুর্ঘটনা-ক্যানসার কেড়েছে স্ত্রী-পুত্রকে, আত্মহত্যার মুখ থেকে ফিরে 'নায়ক' বাইডেন!

More From Author See More

Latest News See More