১৭০ বছর পর ‘অবলুপ্ত’ পাখির দেখা মিলল বোর্নিও-য়

প্রতিদিনই পৃথিবীর বুক থেকে হারিয়ে যাচ্ছে অজস্র প্রজাতি। অনেক সময় তাদের অবলুপ্তির পিছনে থাকে এই সভ্যতারই হাত। আবার কখনো হয়তো মানুষের কাছে আসেনি সংরক্ষণের সুযোগটুকুও। তবে মানুষের গোপনে প্রকৃতি নিজেও এই সংরক্ষণের দায়িত্ব তুলে নেয় কখনো কখনো। এবার হল তেমনই। ১৭৩ বছর আগে বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া ব্ল্যাক-ব্রাউড ব্যাবলার পাখির দেখা মিলল ইন্দোনেশিয়ার বোর্নিয়োর একটি জঙ্গলে।

১৮৪৮ সালে শেষবারের মতো দেখতে পাওয়া গিয়েছিল এই পাখিটিকে। এখনও সংরক্ষিত রয়েছে সেই চিহ্নিতকরণের দলিল। তারপর প্রায় দেড় শতকেরও বেশি সময় পর আবার প্রকাশ্যে এল তার অস্তিত্ব। বোর্নিয়োর রেন ফরেস্টে গত বছর স্থানীয় দুই ব্যক্তির চোখে ধরা দিয়েছিল পাখিটি। তবে মুহম্মদ সুরান্তো ও মুহম্মদ রিজকি নামের দুই ব্যক্তি চিহ্নিতই করতে পারেননি পাখিটিকে। উড়ে যাওয়ার আগে বেশ কিছু ছবি তুলে রাখেন তাঁরা।

সেই ছবিই তাঁরা পাঠান বনদপ্তরে। পরে হাত ঘুরে তা পৌঁছায় পক্ষীবিশারদদের কাছে। দীর্ঘ অনুসন্ধানের পর চমকে ওঠেন পক্ষীবিদ পাঞ্জি গুস্তি আকবর। প্রায় একশো সত্তর বছর আগের সংরক্ষিত স্টাফ করা ব্যবলারের একটি নমুনার সঙ্গে হুবহু মিলে যায় ছবিটি। সম্প্রতি ‘বার্ডিংস’- জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে এই আবিষ্কারের কথা।

গবেষণাপত্রের মূল লেখক আকবরের কথায়, ‘ইউরেকা’ বলে চিৎকার করে ওঠার মতোই ছিল সেই মুহূর্ত। ‘ইন্দোনেশিয়ার সবথেকে রহস্যময় পাখি’ হিসাবেই উল্লেখ করেছেন তিনি। গবেষণাপত্র অনুযায়ী ইন্দোনেশিয়ার নিম্নভূমির বনাঞ্চলে বর্তমানে বসবাস এই পাখির। গায়ে দেখা যায় বাদামি ও ধূসর মেশানো পালক। তবে অন্য যে কোনো এশিয়ান পাখির তুলনায় এর পিছনের পালক বেশ খানিকটা দীর্ঘ।

আরও পড়ুন
‘মিনি কাজিরাঙা’-র জলাশয়ে ভিড় জমায় ৫৮ প্রজাতির পাখি, জানাচ্ছে সমীক্ষা

বার্ডলাইগ ইন্টারন্যাশনাল সিঙ্গারপুরের সংরক্ষণবিদরা নড়েচড়ে বসেছেন এই আবিষ্কারের পর। জানানো হচ্ছে, সাম্প্রতিক সময়ে ব্যাবলার-সহ বেশ কিছু বিপন্নপ্রায় পাখির হদিশ মিলেছে বোর্নিয়োতে। কাজেই তাদের সুরক্ষা এবং সংরক্ষণের বিষয়ে যাতে গুরুত্ব দিয়ে দেখা হয়, তার জন্য ইন্দোনেশিয়ার প্রশাসনের কাছে ইতিমধ্যেই আবেদন করেছে সংস্থাটি। এই মুহূর্তে কোনো পদক্ষেপ না নেওয়া হলে চলতি দশকেই বিশ্বজুড়ে ১৫০টি বিপন্নপ্রায় প্রজাতির পাখি অবলুপ্ত হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে বলেই জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

আরও পড়ুন
ভারতের পাখি প্রজাতির এক-তৃতীয়াংশই সুন্দরবনে, বাড়ছে সংখ্যাও

তবে এই প্রথম নয়। এর আগেও প্রকৃতি এমনই রহস্যের জাল বুনেছিল বছর খানেক আগে। কোভিডের কারণে লকডাউন চলছে তখন ভারতে। কেরালায় প্রায় দুই শতাব্দী আগে হারিয়ে যাওয়া এক উদ্ভিদের সন্ধান দিয়েছিলেন বিজ্ঞানীরা। এবার সেই ঘটনারই আবার পুনরাবৃত্তি হল যেন…

আরও পড়ুন
পৃথিবীর ‘একমাত্র’ বাদ্যযন্ত্রী পাখি, বসবাস ভারত মহাসাগরের দক্ষিণে

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More