গলে যাচ্ছে আস্ত বাড়ি! প্যারিসের ‘মেল্টিং হাউস’ দেখে থ গোটা বিশ্ব

বছর তিনেক আগের কথা। প্যারিসের জর্জ-৫ অ্যাভেনিউর ধারে পথচলতি মানুষ হঠাৎ থমকে দাঁড়িয়ে পড়লেন। দেখতে দেখতে ভিড় জমে গেল। সকলেই অবাক। ব্যাপার আর কিছুই না, সবাই তাকিয়ে দেখছেন রাস্তার ধারে একটি বাড়ির দিকে। সবদিক থেকেই বাড়ির মতো। দেয়াল, জানলা, দরজা সবই আছে। কিন্তু সবই যেন অদ্ভুত চেহারার। দেখে মনে হয় সূর্যের তাপে বুঝি বাড়িটা গলে যাচ্ছে। মোমের তৈরি নাকি!

সামাজিক মাধ্যমেও ভাইরাল হয়ে উঠেছিল প্যারিসের মেল্টিং বিল্ডিং-এর ছবি। অনেকেই অবশ্য ভেবেছিলেন, এ নিশ্চই ছবির কারসাজি! বাস্তবে এমন কোনো বাড়ি থাকতেই পারে না। তবে দেশ-বিদেশ থেকে তথ্যসংগ্রাহকরা গিয়ে দেখলেন, সত্যিই প্যারিসের রাস্তায় দাঁড়িয়ে রয়েছে এমন একটি বাড়ি। এ যেন কোনো আর্কিটেক্টের এক বিস্ময়কর কীর্তি। তবে আরও খোঁজ নিয়ে জানা গেল, এর পিছনে কোনো আর্কিটেক্টের ভূমিকা নেই। আসলে এমন কোনো বাড়ি নেই, এবং কোনোদিন ছিল না।

অবাক লাগছে নিশ্চই! আসলে হাজার হাজার মানুষের দৃষ্টিশক্তিকে নিয়ে খেলা করেছেন এক শিল্পী। তাঁর নাম পিয়ের দেলাভি। ২০০৭ সালেই তিনি এই ত্রিমাত্রিক ছবির পরিকল্পনা করেন। কিন্তু সমস্ত প্রকল্প সম্পাদন করতে যে খরচ প্রয়োজন, তা তখন তাঁর হাতে ছিল না। সুযোগ মিলিল আরও ১১ বছর পর। ২০১৯ সালে। প্যারিসের এক নির্মাণ সংস্থা ঠিক করলেন, নতুন বাড়ি তৈরির সময় তা আড়াল করে রাখা হবে। কোনোভাবেই তা যেন দৃশ্যদূষণের কারণ না হয়। আর সেই দায়িত্ব দেওয়া হল পিয়ের দেলাভিকে। ১১ বছর আগের পরিকল্পনা অনুযায়ী তিনি তৈরি করলেন সেই ত্রিমাত্রিক ছবি। আর ছবি দিয়ে ঘিরে ফেললেন নির্মাণের এলাকা।

সেই ছবি দেখেই অবাক সকলে। কিন্তু এই রহস্য বেশি মানুষের কাছে প্রকাশ করা হয়নি। জর্জ-৫ অ্যাভেনিউর কাছে বাড়িটি দেখতে অভ্যস্ত হয়ে উঠেছিলেন প্যারিসবাসী। বিদেশি পর্যটকরাও ভিড় জমাত। কিন্তু কয়েক মাস পরেই দেখা গেল উধাও ‘মেল্টিং হাউস’। তার জায়গায় দাঁড়িয়ে পেল্লায় আধুনিক এক অট্টালিকা। আজ ‘মেল্টিং হাউস’ এক ইতিহাস। তার অস্তিত্ব শুধুই স্মৃতিতে আর ফটোগ্রাফে।

আরও পড়ুন
ঠিক যেন জানলা থেকে ঝরে পড়ছে বইয়ের স্তূপ, বার্সেলোনার রাস্তায় আশ্চর্য স্থাপত্য

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More