রবীন্দ্র সরোবরে ১৬টি গাছ-পাড়া, অভিনব উদ্যোগ নিল কেএমডিএ

কয়েকমাস আগেই ফনীর ধাক্কায় তছনছ হয়ে গিয়েছিল রবীন্দ্র সরোবর (Rabindra Sarovar)। এরপর একটু একটু করে চলেছে ক্ষতস্থান সারিয়ে তোলার কাজ। করোনা অতিমারী পেরিয়ে আবারও প্রাতঃভ্রমণে আসতে শুরু করেছেন মানুষ। আর ঠিক এই সময়েই সরোবরকে নতুন করে সাজিয়ে তোলার পরিকল্পনা নিল কলকাতা পৌর সংস্থা (KMDA)। তবে শুধুই সৌন্দর্যায়ন নয়, বরং তার সঙ্গে প্রকৃতিকে বাঁচিয়ে রাখা এবং বৈচিত্রকে বাঁচিয়ে রাখাই এই উদ্যোগের মুখ্য উদ্দেশ্য। এমনকি, এবার রাজ্যের বিভিন্ন এলাকার উদ্ভিদবৈচিত্রই দেখা যাবে রবীন্দ্রসরোবর অঞ্চলে। এক এক ধরনের গাছের জন্য তৈরি হচ্ছে এক একটি জায়গা। তাদের নামও আলাদা আলাদা।

রবীন্দ্র সরোবরকে ঘিরে বর্তমানে ৩৬৬টি প্রজাতির গাছের বাস। এর মধ্যে ১৬২টি প্রজাতিই বৃক্ষ জাতীয়। ঔষধি গাছ প্রায় নেই বললেই চলে। এবার বিশেষ করে ঔষদি গাছেদের জন্যই তৈরি হতে চলেছে ‘হার্বাল জোন’। এখানে ব্রাহ্মী, বাসক, থানকুনি, কুলেখাড়া, তুলসী সহ থাকবে মোট ১২০টি প্রজাতির গাছ। এছাড়াও আলাদা করে থাকবে ‘ত্রিফলা জোন’। সেখানে কেবল আমলকী, হরিতকী এবং বহেড়া গাছ দেখা যাবে। পাশাপাশি ‘সুন্দরী জোন’-এ থাকবে সুন্দরী সহ সুন্দরবনের নানা প্রজাতির উদ্ভিদ। ‘রাঙামাটি জোন’-এ দেখা যাবে পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, ঝাড়গ্রাম অঞ্চলের বিভিন্ন উদ্ভিদ। এর মধ্যে প্রথম আকর্ষণ অবশ্যই পলাশ এবং শিমুল। এমনই ১৬টি ভিন্ন ভিন্ন বিভাগে দেখা মিলবে ভিন্ন ভিন্ন প্রজাতির উদ্ভিদের। ইতিমধ্যে পুরো বিষয়টি পরিচালনার জন্য তৈরি হয়েছে একটি কমিটি। সেখানে রাজ্য জীববৈচিত্র বিভাগের পাশাপাশি রয়েছেন কলকাতা ও রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এবং শিবপুর বোটানিক্যাল গার্ডেনের বিশেষজ্ঞরা।

রবীন্দ্র সরোবরের নবরূপায়ণের ক্ষেত্রে আরও একটি অভিনব উদ্যোগ নিয়েছে কেএমডিএ। সমস্ত বড়ো গাছের সম্বন্ধে যাবতীয় তথ্য জানার জন্য পাশের বোর্ডে দেওয়া থাকবে একটি কিউ-আর কোড। পড়ুয়া-গবেষক থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ, যে কেউ সেই কিউ-আর কোড স্ক্যান করে গাছটির সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন। শুধু রবীন্দ্র সরোবরই নয়, দক্ষিণ কলকাতার অরবিন্দনগরেও বিশেষ বাগান গড়ে তোলার উদ্যোগ নিয়েছে কেএমডিএ। আগে সেই জায়গাটিতে ময়লা ফেলা হত। শুকনো আবর্জনা থেকে আগুনও লেগেছে বহুবার। এবার সেখানেই তৈরি হতে চলেছে ফলের বাগান। বিগত কয়েক দশক ধরে কলকাতা শহরের বুক থেকে সবুজের ছোঁয়া তো প্রায় হারিয়েই গিয়েছে। তাকে আবার নতুন করে ফিরিয়ে আনার এই উদ্যোগ নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবি রাখে।

Powered by Froala Editor

আরও পড়ুন
প্রেমে প্রত্যাখ্যাত পুরুষদের জন্য কলকাতায় গড়ে উঠেছিল ‘জবাব ক্লাব’!

More From Author See More

Latest News See More