চারপেয়ে তিমি কিংবা ‘আনুবিস’-এর কিসসা

বিন্দুমাত্র জলের অস্তিত্ব নেই কোথাও। যতদূর দেখা যায় শুধু ধূধূ মরুপ্রান্তর। বালির রাশি। হ্যাঁ, মিশরের কথাই হচ্ছে। এমন রুক্ষ মরুপ্রান্তরেই এবার বিজ্ঞানীরা সন্ধান পেলেন এক প্রকাণ্ড জীবাশ্মের। আর সেই জীবাশ্ম যদি তিমির হয়, তবে চমকে উঠতেই হয়। হ্যাঁ, সপ্ত-মহাদেশ গঠনের আগে মিশরের এই অঞ্চলে ছিল মহাসাগর। সেসময় সেখানে দাপিয়ে বেড়াত সদ্য-আবিষ্কৃত তিমির এই অজানা প্রজাতি। তবে জীবিত অবস্থায় সেই তিমিকে দেখলে, তিমি বলে বিশ্বাস করাই বেশ দুষ্কর হত মানুষের কাছে। কারণ, আজকের তিমির থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন ছিল তার দেহের গঠন। ছিল চার-চারটি পা!

অবিশ্বাস্য লাগলেও সত্যি। আজ থেকে প্রায় ৪.৩ কোটি বছর আগে মিশরের এই অঞ্চলে রাজত্ব ছিল এমনই চারপেয়ে তিমিদের। তবে বিষয় হল, তারা ছিল উভচর। হাঁটার পাশাপাশি, সাঁতারেও যথেষ্ট দক্ষ ছিল এই তিমি প্রজাতি। খুঁজে পাওয়া জীবাশ্মই স্পষ্ট ইঙ্গিত দিচ্ছে তাদের দেহে লিপ্তপদের উপস্থিতির। সদ্য-আবিষ্কৃত এই তিমির প্রজাতিটির খুলির গঠনের সঙ্গে মিশরীয় শেয়ালদেবতা আনুবিসের মাথার সাদৃশ্য থাকায়, তার নামকরণ করা হয়েছে ‘ফিওমিসেটার আনুবিস’। 

তবে তিমির পূর্বপুরুষেরা যে চারপেয়ে ছিল, সে কথা বহু আগেই বলে গিয়েছিলেন ডারউইন। পরবর্তীতে একাধিক জীবাশ্ম খুঁজে পাওয়ার পর অক্ষরে অক্ষরে মিলে গিয়েছিল তাঁর বিবর্তনের তত্ত্ব। গবেষণা বলছে, প্রাচীন কালে তিমির পূর্বপুরুষরা মূলত বসবাস করত স্থলভাগেই। দেহের গঠনও ছিল অনেকটা হরিণের মতো। পায়ে ছিল ক্ষুরের অস্তিত্ব। তবে ক্রমশ ওজন বাড়ার কারণে ধীরে ধীরে অবলুপ্ত হয় তাদের পা। তবে বিবর্তনের সেই প্রক্রিয়া ছিল বেশ ধীর গতির। ফলত, বিবর্তনের মধ্যবর্তী সময়ে লিপ্তপদের ব্যবহার দেখা যায় তিমির মধ্যে। 

সদ্য খুঁজে পাওয়ার জীবাশ্মটির বয়স ৪.১৬ কোটি বছর। দৈর্ঘ্য ছিল প্রায় ১০ ফুট। ওজন কমপক্ষে ৬০০ কেজি। মিশরের ফায়ুম খাদে প্রাচীন এই তিমির আংশিক কঙ্কাল খুঁজে পান গবেষকরা। তারপর মনসৌরা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের তত্ত্বাবধানে শুরু হয় জিনগত বিশ্লেষণ এবং সিমুলেশনের মাধ্যমে তিমির চারিত্রিক গঠন তৈরির কাজ। 

আরও পড়ুন
অজানা মানব প্রজাতি ‘ড্রাগনম্যান’-এর হদিশ চিনে

তবে এই প্রথম নয়। ২০১১ সালে ৫ কোটি বছর পুরনো স্থলবাসী তিমির জীবাশ্ম খুঁজে পাওয়া গিয়েছিল পেরুতে। পরবর্তীতে ভারতের বুকেও মিলেছিল উভচর তিমির জীবাশ্ম। তবে প্রোটোসেটিডির গোত্রের উভচর তিমির মধ্যে সদ্য-আবিষ্কৃত তিমিটিই সম্ভবত সবচেয়ে প্রাচীন প্রজাতি ছিল বলেই মনে করছেন গবেষকরা। 

আরও পড়ুন
প্রথাগত শিক্ষা ছাড়াই নতুন ধানের প্রজাতি আবিষ্কার, হরিপদ কাপালী-র ‘কৃষিবিপ্লব’

Powered by Froala Editor

আরও পড়ুন
আন্টার্কটিকায় নতুন উদ্ভিদ প্রজাতি আবিষ্কার ভারতীয় গবেষকের

More From Author See More

Latest News See More