সুন্দরবনে গাইডের ভূমিকায় মহিলারা, এই প্রথম

সুন্দরবনের গহীন অরণ্য। পদে পদে সেখানে লুকিয়ে রয়েছে বিপদ। রয়েছে প্রতিকূলতা। এমন একটা জায়গায় পর্যটকদের সুরক্ষা নিশ্চিত করে ভ্রমণ করানোর দায়িত্বটাও যে বেশ চ্যালেঞ্জিং, বলার অপেক্ষা রাখে না। আর সেই কারণেই কেবলমাত্র পুরুষরাই সুযোগ পেতেন সুন্দরবনের (Sundarban) ব্যাঘ্র প্রকল্পের গাইড হওয়ার। এর মধ্যে যে পুরুষতান্ত্রিকতার ছাপ লুকিয়ে রয়েছে, তা এক প্রকার স্পষ্টই। এক যুগ পেরিয়ে এসে এবার ভাঙল সেই অচলায়তন। প্রথমবারের জন্য সুন্দরবনে ব্যাঘ্র প্রকল্পের (Tiger Reserve) গাইড হিসাবে দেখা যাবে মহিলাদের (Women Guide)।

সেনাবাহিনী থেকে শুরু করে পাইলট— সমস্ত রকম কর্মক্ষেত্রেই বিশ্বজয় করেছেন মহিলারা। তবে গাইডের ভূমিকাতেই বা সুযোগ মিলবে না কেন তাঁদের? মাস কয়েক আগের কথা। এমন একটি চিন্তাভাবনা থেকেই মহিলা গাইড নেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিল সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্পের কর্তৃপক্ষ। কিন্তু এই বিজ্ঞপ্তিতে কতটা সাড়া মিলবে, তা নিয়ে ধন্দে ছিলেন আধিকারিকরাও। তাঁদের রীতিমতো চমকে দেয় আবেদনকারীর তালিকা। চ্যালেঞ্জিং এই কাজের জন্যই এগিয়ে আসেন সুন্দরবনেরই চার বাসিন্দা— মধুমিতা মণ্ডল, সুমনা মণ্ডল, বীথিকা রায় ও ভাস্বতী কামিলা সরকার। 

আগামী ১ অক্টোবর থেকেই সুন্দরবনের গাইড হিসাবে দেখা যাবে তাঁদের। গত, ১৪ ও ১৫ সেপ্টেম্বর প্রাথমিক পর্যায়ের ট্রেনিং দেওয়ার পর, গাইড হিসাবে নিয়োগ করা হয় তাঁদের। বনদপ্তরের বিশেষ নৌকায় পর্যটকদের সুন্দরবনের টাইগার রিজার্ভ ঘুরিয়ে দেখানোর পাশাপাশি তাঁরা বর্ণনা দেবেন সুন্দরবনের ঐতিহ্য, প্রাকৃতিক ভূমিকা এবং বৈচিত্র্যেরও। সেই কথা ভেবেই সদ্য-নিয়োজিত গাইডদের জন্য বাংলা, হিন্দি এবং ইংরাজি— তিনটি ভাষারই প্রশিক্ষণের বন্দোবস্ত করেছে সুন্দরবনের কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি গাইডদের সুবিধার্থে বাংলা অনুবাদ করানো হচ্ছে প্রচলিত গাইডেন্স পুস্তিকারও। সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্পের তরফে জানানো হয়েছে, বেতনের ক্ষেত্রেও সমানাধিকার পাবেন মহিলারা। প্রতিদিন ৬০০ টাকা করে দেওয়া হবে তাঁদের।

সব মিলিয়ে বলতে গেলে, যেন এক নতুন যুগের সূচনা হতে চলেছে সুন্দরবনে। শুধু মহিলা ক্ষমতায়নই নয়, বরং তার সুস্পষ্ট প্রভাব পড়তে চলেছে প্রান্তিক অর্থনীতিতেও। 

আরও পড়ুন
প্রতি বছর ১০০০ কিলোমিটার ট্রেক! অশীতিপর স্কটিশ মহিলার কীর্তি

Powered by Froala Editor

আরও পড়ুন
‘রিটায়ার্ড হাসবেন্ড সিনড্রোম’! অদ্ভুত রোগে ভুগছেন প্রথম বিশ্বের মহিলারা

More From Author See More

Latest News See More