বরানগরের অতনুর হাত ধরেই অলিম্পিকে পদকের স্বপ্ন দেখছে ভারত

২০১৬ সালের রিও অলিম্পিক। জীবনের প্রথম এত বড়ো প্রতিযোগিতার মঞ্চে পা রেখেছিলেন অতনু দাস। কখনও উত্তেজনায় আবার কখনও ভয়ে হাত কেঁপে গিয়েছে। তার মধ্যেই মনকে শক্ত করেছেন লক্ষ্যভেদের জন্য। না শেষ পর্যন্ত পদক পাননি তিনি। কিন্তু প্রতিযোগিতা থেকে ফিরে তিনি বলেছিলেন, একের পর এক ভুল করেছেন তিনি। এবার শুধু সেই ভুল সংশোধনের পালা। দেখতে দেখতে এসে গেল আরও একটি অলিম্পিক। এবারেও টোকিওর উদ্দেশে যাত্রা করেছেন উত্তর কলকাতার বরানগরের অতনু দাস। আর এবার তাঁকে ঘিরেই পদকজয়ের স্বপ্ন দেখছে ভারত।

এই ৫ বছরে বারবার নিজের যোগ্যতার প্রমাণ দিয়েছেন অতনু। তাঁর ঝুলিতে পুরেছেন একের পর এক মেডেল। গতমাসেই প্যারিসে অনুষ্ঠিত হল আর্চারি বিশ্বকাপের স্টেজ ৩-র আসর। আর সেখানেও দুটি বিভাগে স্বর্ণপদক জয় করলেন অতনু। একটি তিনি এককভাবে। অন্যটি স্ত্রী দীপিকা কুমারীর সঙ্গে মিলিতভাবে। তবে এই সাফল্যের যাত্রাপথটা খুব সহজ ছিল না। রিও অলিম্পিক থেকে ফিরে যখন নিজেকে বেশ কিছুটা তৈরি করে ফেলেছেন অতনু, ঠিক সেই সময় এসে পড়ল করোনা অতিমারী। আর সেইসঙ্গে বন্ধ হয়ে গেল সমস্ত রকমের ট্রেনিং-এর সুযোগ। এমনকি শারীরিক দক্ষতা ধরে রাখার জন্য নিয়মিত জিমেও যেতে পারতেন না। তাই সমস্ত প্রস্তুতি চলেছে বাড়িতেই। বাড়িতে বসে আন্তর্জাতিক স্তরের ক্রীড়া প্রতিযোগিতার জন্য প্রস্তুতি উন্নত দেশগুলিতে যতটা সহজ, ভারতের মতো দেশে ততটা সহজ নয়। তাই বিশ্বকাপের আসর ছিল সত্যিই এক অসম প্রতিযোগিতা। কিন্তু সেখানেও জয়ী হয়ে ফিরে এলেন অতনু।

স্টেজ ১-এর প্রতিযোগিতার জন্য যখন তিনি গুয়াতেমালা শহরে, ঠিক তখনই ভারতে আছড়ে পড়েছে করোনা অতিমারীর দ্বিতীয় তরঙ্গ। সবসময় মন উদ্বিগ্ন হয়ে থাকত পরিজনদের জন্য। কিন্তু সেই উদ্বেগ কখনও তাঁকে লক্ষভ্রষ্ট হতে দেয়নি। স্টেজ ১০-এ দুটি বিভাগে স্বর্ণপদক জয় করলেন। কিন্তু অতিমারীর কারণে স্টেজ ২-এ অংশ নিতে পারলেন না। অবশেষে স্টেজ ৩-এ আবার নিজেকে শ্রেষ্ঠ প্রমাণ করলেন তিনি। শুধুই বিশ্বকাপ নয়, অতনু দাসের সংগ্রহে রয়েছে আর্চারি ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপের রৌপ্যপদক এবং এশিয়ান আর্চারি চ্যাম্পিয়নিশিপের ব্রোঞ্জ পদকও। ২৯ বছর বয়সেই তিনি দেশের শ্রেষ্ঠ তিরন্দাজদের তালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন। সম্ভবত বিশ্বের শ্রেষ্ঠ তীরন্দাজদেরও তিনি একজন। তবে এই পরীক্ষার সবচেয়ে বড়ো ক্ষেত্র যে অলিম্পিক। ৫ বছর পর আবারও সেই মঞ্চে নিজের যোগ্যতা প্রমাণের সুযোগ নিশ্চই হাতছাড়া করবেন না অতনু। আর এক বাঙালির নেতৃত্বেই অলিম্পিক জয়ের গৌরব অর্জনের স্বপ্ন দেখছে গোটা ভারত।

Powered by Froala Editor

আরও পড়ুন
১২৮ বছর পর অলিম্পিকে ফিরতে চলেছে ক্রিকেট

More From Author See More

Latest News See More