প্রথম ভারতীয় মহিলা হিসেবে ‘ওয়াইল্ডলাইফ ফটোগ্রাফার অফ দ্য ইয়ার’ সম্মান তরুণীর

রাতের আকাশ আলো করে আছে এক ঝাঁক জোনাকি। মনোরম প্রকৃতির মাঝে মন দৃশ্য দেখে মুগ্ধ না হয়ে উপায় নেই কারোরই। কিন্তু সেই বিন্দু বিন্দু আলো যেন শুধু মানূষের চোখে ধরা দেওয়ার জন্যই জ্বলে ওঠে। তাকে ক্যামেরার লেন্সে বন্দি করতে গেলেই হারিয়ে যায়। অন্তত সাধারণ মানুষের জীবনে এমন অভিজ্ঞতাই হতে বাধ্য। কিন্তু মুম্বাই শহরের ঐশ্বর্যা শ্রীধর তো সাধারণ নন। তাঁর হাতে ক্যামেরা তার শিল্পগুণ খুঁজে পায়। তাই তিনি লেন্সবন্দি করে ফেলেছেন এই মনোরম দৃশ্যকে। আর এই কাজই এনে দিল ফটোগ্রাফির জগতে অন্যতম শ্রেষ্ঠ সম্মান, ‘ওয়াইল্ডলাইফ ফটোগ্রাফার অফ দ্য ইয়ার’।

২০২০ সালে লন্ডন ন্যাচারাল হিস্ট্রি মিউজিয়াম প্রকাশিত ‘ওয়াইল্ডলাইফ ফটোগ্রাফার অফ দ্য ইয়ার’ হিসেবে নির্বাচিত হলেন ঐশ্বর্যা শ্রীধর। ভারতীয় মহিলা হিসাবে তিনিই প্রথম এই শিরোপাজয়ী। এমনিতেই ওয়াইল্ডলাইফ ফটোগ্রাফির মতো বিপজ্জনক কাজে ভারতীয়দের এগিয়ে আসার সংখ্যাটা বেশ কম। আর সেখানে মহিলাদের অংশগ্রহণ একেবারেই হাতে গোনা। ঐশ্বর্যার এই কৃতিত্ব হয়তো তাই একটা মাইলস্টোন হয়ে থাকবে। আগামীদিনে পুরুষের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে সমানভাবে এগিয়ে আসবেন মহিলারাও।

তবে ‘ওয়াইল্ডলাইফ ফটোগ্রাফার অফ দ্য ইয়ার’-এর দাবিদার হওয়া সত্যিই সহজ বিষয় নয়। সারা বিশ্বের ৮০টি দেশের অসংখ্য প্রতিযোগী এই সম্মানের জন্য ঝাঁপিয়ে পড়েন। আর সেখান থেকে বেছে নেওয়া হয় মাত্র ১০০ জনকে। ঐশ্বর্যা এই সম্মান পেয়েছেন বিহেভিয়ার ইনভার্টিব্রেটস বিভাগে। জোনাকি প্রাণীটির থেকেও যেন এখানে তার আলোটাই ছবির বিষয়বস্তু হয়ে উঠেছে। এক মায়াময় দৃশ্য যেন মনে করিয়ে দেয় ভ্যান গঘের স্টারি নাইটসের কথাই। পার্থক্য শুধু এই যে, সেটা রং-তুলিতে আঁকা ছিল, আর এটা ক্যামেরায় বন্দি।

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More

avcılar escortbahçeşehir escortdeneme bonusu veren sitelerbahis siteleri