মাওবাদী ডেরা, প্রেম ও ‘ইস্কাবন’-এর গপ্পো

গত ১০ বছরে দৃশ্যটা বদলেছে অনেকটাই। অরণ্যের বুক থেকে আর যখন তখন ভেসে আসে না গুলির শব্দ। ল্যান্ডমাইনের আতঙ্কে তটস্থ হয়ে থাকতে হয় না গাড়িচালকদের। তবে আজও তার স্মৃতিতে জমে রয়েছে সেই রক্তাক্ত দিনগুলি। আজও জঙ্গলমহলের সমার্থক মাওবাদীদের ডেরা-জীবন। আর সেই সময়টাই রুপালি পর্দায় ফিরে আসতে চলেছে এসএমডি এন্টারটেইনমেন্টের হাত ধরে। অতিমারী পরিস্থিতির মধ্যেই শুরু হয়ে গেল ‘ইস্কাবন’-এর শুটিং।

এই সময়ের জনপ্রিয় তরুণ লেখক রাধামাধব মণ্ডলের ‘রেডস্টারের ক্যাম্প’ গল্পকে অবলম্বন করে গড়ে উঠতে চলেছে এই সিনেমা। রেডস্টারদের ডেরা-জীবন মানে কি শুধুই রাজনীতি আর গেরিলা যুদ্ধের প্রস্তুতি? ‘ইস্কাবন’ দেখাবে এক অচেনা গল্প। উত্তাল রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে একটি সুপ্ত মিষ্টি প্রেম গোটা ছবিকে ঘিরে হাঁটবে। তার মধ্যেই অবশ্য উঠে আসবে ক্যাম্পের সরেজমিন ইতিহাস। হিংস্রতার নানা কাহিনি চিত্রিত গল্পের অনুষঙ্গও ধরা থাকবে ছবির ফ্রেমে। লেখক রাধামাধব মণ্ডলের কথায়, “সাংবাদিকতার দৌলতে বার বার কিষেনজি-র সঙ্গে কথা বলেছি সে সময়। তাঁরা তাদের আদর্শ থেকে অনেকখানি সরে গিয়েছিলেন কি? জানা নেই! সে তাত্ত্বিক লড়াই। তবে আমি গল্পে সে সব বলিনি।” এই গল্পে উঠে এসেছে রেডস্টার জীবনের ভোগ-বিলাসিতার কথা। তাঁদের মধ্যেও দানা বেঁধেছিল ক্ষমতার দম্ভ। আর সেখান থেকেই অহমিকার উত্থান। এমনকি নারীর অধিকার নিয়েও লড়াইয়ে মেতেছিলেন তাঁরা।

তবে ছবির সঙ্গে জড়িয়ে আছে আসলে দুটি জঙ্গলমহল। একটি পূর্ব বর্ধমানের আউসগ্রামের জঙ্গল। আর অন্যটি অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক ইতিহাসের রক্তাক্ত সংগ্রামের জঙ্গলমহল ঝাড়গ্রাম। একটি জঙ্গলকে ঘিরে এগিয়েছে সিনেমার কাহিনি। আর অন্য জঙ্গলটির সঙ্গে জড়িয়ে এই ছবির জন্ম। আউশগ্রামের জঙ্গলমহলের ভূমিপুত্র সেখ আব্দুল লালন। দক্ষতার সঙ্গে নানা ব্যবসা সামলে এবার তিনি পা রেখেছেন প্রযোজনার জগতে। অবশ্য তাঁর কথায়, “এই মঞ্চে বহু মানুষের কাছাকাছি হওয়া যায়, সে সুযোগ ঘটে। ফলে এই জনপ্রিয় মাধ্যমে কাজ করতে করতে আরও বহু মানুষের খোঁজ নেওয়াই আমার ইচ্ছা।” আর সত্যিকারের মানুষের খোঁজ পেতে ছবির নির্মাণের জন্য প্রযোজক নিজেই পৌঁছে গিয়েছেন ঝাড়গ্রামের জঙ্গলমহলের আদিবাসীপ্রধান প্রত্যন্ত গ্রামগুলিতে। আর প্রযোজকের উদ্দীপনার সঙ্গে যোগ্য সঙ্গত করে চলেছেন তরুণ পরিচালক মন্দীপ সাহা। সঙ্গে সহকারী হিসাবে রয়েছেন ‘সুন্দরবনের গপ্পো’-র ডিরেক্টর প্রদীপ মিস্ত্রি।

১৪ জুলাই শুরু হয়ে গিয়েছে ‘ইস্কাবন’-এর শুটিং। এই ছবিতে নায়িকার ভূমিকায় দেখা যাবে অনামিকা চক্রবর্তীকে। সঙ্গে রয়েছেন সৌরভ দাস, সুমিত গাঙ্গুলী, অভিনেতা খরাজ মুখার্জীর মতো জনপ্রিয় অভিনেতারা। বিশেষ একটি চরিত্রে দেখা যাবে অভিনেতা দুলাল লাহিড়ীকেও। আর ৪ বছর পর আবারও নেপথ্যসঙ্গীতে ফিরছেন নচিকেতা চক্রবর্তী।

আরও পড়ুন
প্রথম চলচ্চিত্রের আগেই বানিয়ে ফেলেছিলেন পঞ্চাশেরও বেশি ছবি!

সিনেমার আবহে আবার নতুন করে ইতিহাসে ফিরছে জঙ্গলমহল। শুটিং দেখতে ভিড় জমানো মানুষদের মনেই ফিরে ফিরে আসছে সেই স্মৃতি। তবে আজকের জঙ্গলমহল আগেকার সময়ের সঙ্গে মেলে না একেবারেই। এই ছবি তাই নতুন করে কোনো বিতর্ক উস্কে দিতেও রাজি নয়। বরং পরিচালক বলছেন, “কোভিড পরিস্থিতি কাটিয়ে হলমুখী করুক মানুষকে। আবার হইহই করে সক্কলে আমাদের ছবি দেখুন।” জঙ্গলমহল তার বিভীষিকাময় দিনগুলো পেরিয়ে এসেছে। আর এই অতিমারীর দিনগুলোও কাটিয়ে উঠুক চলচ্চিত্র জগত। এভাবেই নতুন করে গড়ে তোলার স্বপ্ন নিয়ে এগিয়ে চলেছে ‘ইস্কাবন’-এর নির্মাণ।

আরও পড়ুন
সত্যজিৎ-স্মরণে শর্টফিল্ম ফেস্টিভাল, আয়োজনে কলকাতার এক দল তরুণ চলচ্চিত্রকার

Powered by Froala Editor

আরও পড়ুন
কান চলচ্চিত্র উৎসবে বাংলাদেশের সিনেমা

More From Author See More

Latest News See More