ফিরছে সোভিয়েত দেশের রূপকথা, কলকাতা বইমেলায় এবারের থিম রাশিয়া

রাশিয়া শুনলে আমাদের অনেকেরই মনে পড়বে ছোটবেলায় পড়া ‘সোভিয়েত দেশের রূপকথা’র কথা। ইভান, বাবা ইয়াগা, ওয়ালিসিলা, ভাসিলিসা ও আরও অসংখ্য চরিত্র ভরে রেখেছিল আমাদের শৈশব। সেই সোভিয়েত ইউনিয়ন আর নেই। কিন্তু তার ঐতিহ্যটুকু আজও টিকিয়ে রেখেছে রাশিয়া। রুশ বিপ্লব, লেলিন, স্ট্যালিন হোক কিংবা ম্যাক্সিম গোর্কির ‘মা’ – রাশিয়া বরাবরই বাঙালির পরিচিত দেশ। সেই দেশই এবার থিম হতে চলেছে আসন্ন কলকাতা বইমেলার।

২০২০ সালের ২৯শে জানুয়ারি শুরু হতে চলেছে কলকাতা বইমেলা। অজস্র বইপড়ুয়ারা ভিড় জমাবেন এই মেলায় তাদের প্রিয় বই সংগ্রহ করার জন্য। দূরের জেলা থেকে বহু মানুষ ছুটে আসবেন প্রিয় বন্ধু, প্রিয় বইয়ের উষ্ণতা পেতে। এ-বছরও সল্টলেকের করুণাময়ীর সেন্ট্রাল পার্কেই আয়োজিত হচ্ছে এই মিলনোৎসব। আর তাতেই রাশিয়াকে বেছে নেওয়া হয়েছে ‘থিম কান্ট্রি’ হিসেবে।

তবে শুধু থিমেই চমক নয়, চমক থাকছে বইপত্রেও। রাশিয়ান ও বাংলা প্রকাশকদের উদ্যোগে বেশ কিছু রাশিয়ান বই বাংলায় এবং বেশ কিছু বাংলা বই রাশিয়ায় অনুবাদ করা হবে।  দুই দেশের সাহিত্যকে সাধারণ মানুষের কাছে আরও বেশি করে পৌঁছে দেওয়াই এর উদ্দেশ্য। অন্যদিকে, ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের জন্মের দ্বিশতবর্ষও পালিত হবে বইমেলার প্রাঙ্গণে।

প্রসঙ্গত, উল্লেখযোগ্য পাঁচজন রাশিয়ান লেখক এই মেলায় উপস্থিত থাকবেন বলে জানিয়েছেন রাশিয়ান কর্তৃপক্ষ। গত বছর সামগ্রিক ভাবে মেলা থেকে ২২ কোটি টাকার বই বিক্রি হয়েছিল। আশা করা হচ্ছে, বই বিক্রির হার এ-বছর আরও বৃদ্ধি পাবে।

৯ই ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলবে এই মেলা। গত বছর প্রায় ২৪ লক্ষ বইপাগল এসেছিলেন এই মেলায়। আগামী বছরের মেলায় থাকবে ৬০০টি প্রকাশনার স্টল ও ২০০টি লিটিল ম্যাগাজিনের স্টল। জাপান, আমেরিকা, ইউকে, ফ্রান্স, অস্ট্রেলিয়া, বাংলাদেশ সহ বিভিন্ন দেশের স্টল থাকছে বইমেলায়।

কারও কারও কাছে বইমেলা মানে বইয়ের উৎসব। বইয়ের কাছাকাছি যাঁরা থাকতে ভালোবাসেন, তাঁদের কাছে এই মেলা কয়েকটাদিনের জন্য একরকম ভালো থাকার জায়গাও। নব্বইয়ের দশকের সুমনের গানের অনুষ্ঠানে বারবার দেখা হওয়া নিয়ে জয় গোস্বামী লিখেছিলেন – ‘দেখা হবে সুমনে-সুমনে।’ আমরা যদি তেমনি বইয়ে-বইয়ে দেখা হওয়ার স্বপ্ন দেখি, এই আকালেও, খুব ভুল হবে না হয়তো।

More From Author See More

Latest News See More