ফ্লয়েডের হত্যাকারীর শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ, উত্তাল মিনেপলিস

আজ থেকে ঠিক ১০ মাস আগের ঘটনা। মিনেপলিসের একটি শপিং মলের সামনে সাদা চামড়ার পুলিশের নির্যাতনের শিকার হহলেন জর্জ ফ্লয়েড। অপরাধ একটাই, তিনি কালো চামড়ার মানুষ। বর্ণবিদ্বেষী সেই পুলিশ অফিসারের অত্যাচারে প্রাণ হারালেন জর্জ ফ্লয়েড। আর এই ঘটনাকে কেন্দ্র করেই সারা পৃথিবীতে নতুন করে প্রাসঙ্গিকতা তৈরি করে নিল ‘ব্লল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলন। ইউরোপ-আমেরিকার পাশাপাশি উন্নয়নশীল দেশগুলিতেও আন্দোলনের আগুন ছড়িয়ে পড়ল। কিন্তু এখনও জর্জ ফ্লয়েডের হত্যাকারীর সাজা হয়নি। ১০ মাস পর আইনি গাফিলতির অভিযোগ তুলে রবিবার সকাল থেকেই মিনেপলিসের শপিং মলের সামনে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন সাধারণ মানুষ। কালো চামড়ার মানুষের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে এগিয়ে এসেছেন সাদা চামড়ার মানুষও। রবিবার দিনভর জনতা-পুলিশ সংঘর্ষের সাক্ষী থাকল মিনেপলিস।

বিক্ষোভের কথা জানতে পেরে আগে থেকেই ব্যারিকেড প্রস্তুত রেখেছিল পুলিশ। কিন্তু অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে কয়েকজন বিক্ষোভকারী ঢুকে পড়লেন মল চত্বরে। সেখান থেকেই অশান্তির শুরু। এরপর আন্দোলনকারীদের দিকে ঝাঁকে ঝাঁকে ছুটে আসে পুলিশের গুলি। এমনকি জলকামান ও টিয়ার গ্যাসের সেলও ফাটানো হয়।

সাধারণ মানুষের ন্যায্য দাবির লড়াইয়ের উপর পুলিশের এরকম দমনমূলক নীতি যেন আরও একবার বুঝিয়ে দিল, এই ১০ মাসে প্রশাসনের অন্দরমহলের চরিত্রটা একেবারেই বদলায়নি। আর এটাই আন্দোলনকারীদের কাছে সবচেয়ে আশঙ্কার কারণ। ইতিমধ্যে কেউ কেউ এই প্রশাসন নিষ্ক্রিয় করে দিয়ে নতুন দায়িত্বশীল বাহিনী তৈরির দাবিও রেখেছেন। পাশাপাশি আশঙ্কা থেকে যাচ্ছে, বিচারে শেষ পর্যন্ত ছাড়া পেয়ে যাবেন না তো ফ্লয়েডের হত্যাকারী?

ইতিমধ্যে মিনেপলিসের বাসিন্দাদের মধ্যে থেকে দাবি উঠেছে, ফ্লয়েডের মৃত্যুর জায়গাটি বিশেষ স্মৃতিসৌধের সঙ্গে সংরক্ষণ করতে হবে। আর সেই প্রাঙ্গনের নাম রাখতে হবে ‘জর্জ ফ্লয়েড স্কোয়ার’। এই বিষয়েও এখনও প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। প্রশাসন পুরো বিষয়টিই অত্যন্ত নির্বিকার দৃষ্টিতে দেখছে। এর পর ফ্লয়েডের হত্যাকারী মুক্তি পেয়ে আবারও পুলিশ বাহিনীতে যোগ দিলে অবাক হওয়ার কিছুই নেই। অন্তত তেমনটাই মনে করছেন মিনেপলিসের বাসিন্দারা। তবে গত নির্বাচনে জো বাইডেনের জয়ের অন্যতম ইস্যুই তো ছিল বর্ণবিদ্বেষ। হোয়াইট হাউস কি এই সময় হস্তক্ষেপ করবে না? আপাতত সেদিকেই তাকিয়ে আছেন সাধারণ মানুষ।

আরও পড়ুন
২.৭ কোটি মার্কিন ডলারের ক্ষতিপূরণ, ‘বিচার’ পেলেন জর্জ ফ্লয়েড?

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More