চরম আর্থিক মন্দার সম্মুখীন জাপান, বিশ্বযুদ্ধের পরে এই প্রথম

পৃথিবীর তৃতীয় বৃহত্তর জাতীয় অর্থনীতি জাপানের। করোনা মহামারীর আবহে সেই জাপানই এখন চরম অর্থনৈতিক মন্দার সম্মুখীন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরে এই প্রথম এত বড়ো অর্থনৈতিক ধাক্কার মুখোমুখি জাপান।

কোভিড-১৯ ছড়ানোর আগে গত বছর থেকেই বেশ চাপের মধ্যে ছিল জাপানের অর্থনীতি। টাইফুন হাগিবিসের হানায় ক্ষয় ক্ষতি হয়েছিল ভাবনাতীত। সেই পরিস্থিতিতে মহামারীর আঘাতে তলানিতে এসে ঠেকে জাপানের জাতীয় আয়। প্রথম তিন মাসে জিডিপি-র পতন হয় ০.৯ শতাংশ। সেই নিরিখেই গোটা বছরে ক্ষতির হার হতে পারে ৩.৪ শতাংশ। তবে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছিল সংখ্যাটা ছুঁতে পারে ৪.৬ শতাংশের আসেপাশে। সেক্ষেত্রে ক্ষতির পরিমাণ কমিয়ে আনতে জাপান সরকার সচেষ্ট হয়েছে খানিকটা।

এই মন্দার কারণ খুঁজতে গিয়ে বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন লকডাউনে যেমন বন্ধ রয়েছে কলকারখানা, পাশাপাশি কমেছে রপ্তানিও। জাপানের অর্থনীতির ১৬ শতাংশই আসে এই রপ্তানি থেকেই। প্রথম তিন মাসে যা নেমে এসেছে মাত্র ৬ শতাংশে। মে-জুনে পরিস্থিতি আরো ভয়ানক হতে পারে বলেই আশঙ্কা করছেন অর্থনীতিবিদরা।

তবে অর্থনীতি আয়ত্তে আনার আগে দেশের মানুষের নিরাপত্তার কথা নিয়েই বেশি চিন্তিত জাপান সরকার। নেওয়া হচ্ছে সমস্ত রকম সতর্কতা। সম্প্রতি কোভিড-১৯ এর পাশাপাশি জাপানে আছড়ে পড়েছে সুনামিও। দুই পরিস্থিতির মোকাবিলায় ইতিমধ্যেই ১ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলারের প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে। যা জাপানের মোট আয়ের ২০ শতাংশ। স্পষ্টত দুঃসময়কে অতিক্রম করাই এখন প্রথম টার্গেট জাপানের সামনে…

More From Author See More

Latest News See More