মন্দিরের অতিরিক্ত দুধ তুলে দেওয়া হচ্ছে পথ-কুকুরের মুখে, মানবিকতার সাক্ষী মুম্বাই

লকডাউন ও তার পরবর্তী সময়ে বারবার উঠে এসেছে রাস্তার কুকুর-বেড়ালদের দুর্দশার কথা। এতদিন রাস্তার ফেলে দেওয়া খাবার সংগ্রহ করে কোনোরকমে তাদের চলে যেত। কিন্তু লকডাউনের সময় খাবার সংগ্রহ করা বেশ কঠিন হয়ে পড়েছে। কিন্তু এই নিয়ে আলোচনা যত হচ্ছে তত বেশি মানুষ প্রাণীদের সাহায্য করতে এগিয়ে আসছে কি? তবে সবাই এগিয়ে না এলেও অনেকের মধ্যেই এখনও বেঁচে আছে মানবিকতা। আর তেমনই এক বিরল নমুনা রাখল মুম্বাইয়ের একটি মন্দির কর্তৃপক্ষ।

সম্প্রতি ‘অ্যানিম্যাল ম্যাটার টু মি’ নামের একটি ফেসবুক পেজ থেকে প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা গিয়েছে মন্দিরের নিত্যপূজার শেষে কয়েকশ গ্যালন দুধ নষ্ট না করে ঢেলে দেওয়া হচ্ছে একটি বড় পাত্রের মধ্যে। আর সেই পাত্রের চারিদিকে ভিড় করছে অসংখ্য আশ্রয়হীন কুকুর। প্রত্যেকেই যেন পরম তৃপ্তির সঙ্গে দুধ খাচ্ছে। অবশ্য তা না হলে হয়তো অনাহারেই থাকতে হত সারাদিন।

দেশের বিভিন্ন মন্দিরে প্রতিদিন যে বিপুল পরিমাণ দুধ এবং প্রসাদ নষ্ট হয় সেকথা তো কমবেশি সবারই জানা। তবে সেটা নষ্ট না করে রাস্তার কুকুরদের দেওয়া হচ্ছে দেখে অনেকেই সাধুবাদ জানিয়েছেন। অনেকে এমনও দাবি করেছেন যে প্রত্যেক মন্দিরের জন্যই এই ব্যবস্থা বাধ্যতামূলক করে দেওয়া হোক। অবশ্য এর মধ্যেই অনেকে আশঙ্কা প্রকাশ করে জানিয়েছেন, গরুর দুধ মানুষের শরীরের জন্য যথেষ্ট উপকারী হলেও কুকুরের শরীরে তা নয়। বরং অনেক কুকুরের পাকস্থলিতেই গরুর দুধ সহ্য হয় না। তবে এই বিষয়ে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ প্রয়োজন। কিন্তু সেকথা বাদ দিয়েও বলা যায়, ধর্ম যখন নিছক রাজনীতির হাতিয়ার হয়ে উঠছে তখন একটি মন্দিরে এমন উদ্যোগ আবারও প্রমাণ করল মানুষের মধ্যে থেকে মানবিকতা সম্পূর্ণ মুছে যায়নি।

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More