একটিমাত্র পা নিয়েই ম্যারাথন দৌড়, ব্যতিক্রমী লড়াইয়ে নজির গড়ছেন প্রসন্ন

দুর্ঘটনাকে পিছনে ফেলে এগিয়ে যাওয়াই জীবন। কিন্তু কতজন মানুষই বা সেই মনের জোর রাখতে পারেন? হায়াদ্রাবাদ নিবাসী আলিগা প্রসন্ন কুমার তাই সত্যিই একজন ব্যতিক্রমী মানুষ। দুর্ঘটনায় একটি পা হারিয়েও জীবনযুদ্ধে হার মানেননি তিনি। শুধু তাই নয়, কৃত্রিম পায়ের উপর ভর করে নেমেছেন ম্যারাথন দৌড়ের মাঠেও। মনের জোর থাকলে যে সমস্ত প্রতিবন্ধকতাকেই জয় করা যায়, তাই প্রমাণ করেছেন তিনি। একসময় বিবাহ ও অন্যান্য অনুষ্ঠানের ফটোগ্রাফি করতেন প্রসন্ন। তবে এখন খেলাধুলোকেই সঙ্গী করে নিয়েছেন পুরোপুরি। এমনকি প্যারালিম্পিকে (Paralympics) নামার পরিকল্পনাও নিচ্ছে প্রসন্ন কুমার (Prasanna Kumar)।

প্রথম জীবনে যথেষ্ট বেপরোয়া জীবনযাপন করতেন তিনি। আর সেই কারণেই ২০১৩ সালে ঘটে যায় এক দুর্ঘটনা। একটি বিবাহ অনুষ্ঠান থেকে ফটোগ্রাফি করে ফিরছিলেন প্রসন্ন এবং তাঁর এক বন্ধু। দুজনেই যথেষ্ট মদ্যপান করে ছিলেন। বন্ধুটি গাড়ির ভারসাম্য বজায় রাখতে না পারায় দুর্ঘটনা ঘটে যায়। বন্ধুটির হাতে এবং মাথায় সামান্য আঘাত লাগলেও প্রসন্ন কুমারের ডান পা গুরুতর জখম হয়। তাছাড়া, পথচলতি কোনো মানুষও প্রথমে তাঁদের সাহায্য করতে এগিয়ে আসেননি। তাই হাসপাতালে পৌঁছতেও দেরি হয়ে যায়। শেষ পর্যন্ত যখন চিকিৎসা শুরু হয়, তখন পা কেটে বাদ দেওয়া ছাড়া আর কোনো উপায় ছিল না।

প্রথম প্রথম বেশ ভেঙে পড়েছিলেন তিনি। বয়সও তখন মাত্র ২৮ বছর। এই বয়স থেকেই পঙ্গু হয়ে যাওয়ার কথা ভাবতেই পারতেন না তিনি। তবে পরিবারের সদস্যদের এবং বন্ধুদের পাশে পেয়ে ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠতে থাকেন প্রসন্ন। এমনকি, জিমেও যাতায়াত শুরু করেন। আর এই সময়েই প্রথম ম্যারাথন দৌড়ের ডাক পান তিনি। তবে একটিমাত্র পা নিয়ে কীভাবে দৌড়বেন? প্রতিযোগিতার আগেই অবশ্য কৃত্রিম পায়ের ব্যবস্থা হয়ে যায়। সেই কৃত্রিম পায়ের উপরে ভর দিয়েই ২০১৩ সালে মাঠে নামলেন তিনি। ৫ কিলোমিটার রাস্তা দৌড়তে সময় লেগেছিল মোটামুটি ১ ঘণ্টা। সদ্য দুর্ঘটনার মুখ থেকে ফিরে আসা একজন মানুষের এই দ্রুততা অবাক করেছিল সবাইকেই। আর তারপর আর পিছনে ফিরে তাকাননি তিনি।

এরপর একের পর এক ১০ কিলোমিটার, ১৫ কিলোমিটারের ম্যারাথন দৌড়ে অংশ নিতে থাকেন তিনি। তবে সম্প্রতি বেঙ্গালুরুতে অনুষ্ঠিত ২১ কিলোমিটারের মহা ম্যারাথন তাঁর জীবনের সবচেয়ে কঠিন প্রতিযোগিতা ছিল বলে জানিয়েছেন প্রসন্ন। আগামীদিনে আরও কঠিন প্রতিযোগিতার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন তিনি। এমনকি একদিন প্যারালিম্পিকের মাঠে নামার স্বপ্নও দেখছেন তিনি। শুধুই শারীরিক প্রতিবন্ধকতাযুক্ত মানুষদের কাছে নন, আলিগা প্রসন্ন কুমার প্রত্যেকের কাছেই অনুপ্রেরণা।

আরও পড়ুন
গৃহযুদ্ধে হাত-পা হারিয়েও শান্তির জন্য লড়ছেন কলোম্বিয়ান প্যারা-সাইক্লিস্ট

Powered by Froala Editor

আরও পড়ুন
প্যারালিম্পিকে প্রথম বাঙালি পদকজয়ী, চেনেন মনোজ সরকারকে?

More From Author See More