সারা দেশের সর্বনিম্ন জল-অপচয় বজবজ তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রে, আন্তর্জাতিক শংসাপত্র পেল সিইএসসি

বর্তমানে সারা পৃথিবীতে সবথেকে জ্বলন্ত সমস্যা পরিবেশ দূষণ। আর পরিবেশের সামনে সবচেয়ে বড়ো প্রতিবন্ধকগুলোর একটি অবশ্যই তাপবিদ্যুৎকেন্দ্র। বাতাসে কার্বনের পরিমাণ বেড়ে যাওয়া তো আছেই, এমনকি তাপবিদ্যুৎ তৈরিতে প্রয়োজন হয় বিস্তর জলের। আর এর ফলে ব্যবহার্য জলের পরিমাণও কমে আসছে। তবে এই পরিস্থিতিতেই নতুন রেকর্ড তৈরি করল কলকাতা বিদ্যুৎ বণ্টন সংস্থা সিইএসসি। বজবজে সিইএসসি-র তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রেই দেশের মধ্যে সবচেয়ে কম জলের অপচয় হয়। সম্প্রতি আন্তর্জাতিক পরিবেশ সংস্থা এনার্জি অ্যান্ড এনভার্মেন্ট ফাউন্ডেশন-এর তরফ থেকে মিলল এই শংসাপত্র।

প্রতি ইউনিট বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য ৩.৫ লিটার জলের ব্যবহারকেই জাতীয় বেঞ্চমার্ক হিসাবে ধরা হয়। তবে দেশের বেশ কিছু তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রেই এর থেকে বেশি পরিমাণ জল লাগে। সেখানে বজবজ তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রে প্রতি ইউনিট বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য খরচ হয় মাত্র ২ লিটার। ইইএফ-এর বিশেষজ্ঞরা পরীক্ষা করে এই হিসাব নিশ্চিত করেছেন। ১৯৯৭ সালে বজবজে প্রথম কেন্দ্রটি তৈরি হয়। ২৫০ মেগাওয়াটের এই কেন্দ্রের অনুরূপ আরও দুটি কেন্দ্র তৈরি হয় ১৯৯৯ এবং ২০১০ সালে। সব মিলিয়ে ৭৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন থেকে কলকাতা শহরের বিদ্যুতের প্রয়োজন মিটে যায়।

দেশের বিদ্যুৎ ব্যবহারের ইতিহাসের সঙ্গে ওতোপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে কলকাতা শহরের নাম। আর সেই ইতিহাসের মুকুটেই যোগ হল আরও একটি পালক। যদিও বর্তমান পরিস্থিতিতে কোনোভাবেই তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রের পক্ষে রায় দেওয়া সম্ভব নয়। জলের অপচয় কম হলেও পরিবেশের আরও নানা ধরণের বিপদের আশঙ্কা থেকেই যায়। তবে আন্তর্জাতিক পরিবেশ সংস্থার পক্ষ থেকে পাওয়া এই সম্মান সিইএসসির গৌরবকে আরও একটু বাড়িয়ে দিল।

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More