বিনামূল্যেই ইন্টারনেট পরিষেবা! পথ দেখাচ্ছেন ভারতীয় তরুণী

আজকের দিনে ইন্টারনেট ছাড়া অঞ্চল মানব সভ্যতা। তবে সাম্প্রতিক সময়ে উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পেয়ে চলেছে তার মূল্য। যা অধিকাংশ মানুষেরই সাধ্যের বাইরে। কিন্তু ইন্টারনেট পরিষেবা হঠাৎ করেই যদি ‘ফ্রি’ করে দেওয়া হয়? তাহলে মন্দ হয় না, তা আর বলার অপেক্ষা থাকে না। কিন্তু এ-কথা যেন ইউটোপিয়ার মতোই শোনায়। তবে এমনটাই হতে চলেছে এবার। আগামীতে গোটা বিশ্বেই বিনামূল্যে ইন্টারনেট পরিষেবা পেতে চলেছেন মানুষ। আর তার নেপথ্যে রয়েছে এক ভারতীয় তরুণী। 

‘জায়েন্ট প্রোটোকল’ (GIANT Protocol) (গ্লোবাল ইন্টারনেট অ্যাক্সেস নেটওয়ারক টোকেন প্রোটোকল)— মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এই স্টার্টআপ রীতিমতো সাড়া ফেলে দিয়েছে আমেরিকার সিলিকন ভ্যালিতে। যার প্রতিষ্ঠাতা মুম্বাইয়ের প্রবাসী তরুণী সুরুচি গুপ্তা। ইন্টারনেট পরিষেবার বিকেন্দ্রীকরণ এবং গণতান্ত্রিকতারই জন্যই লড়ছে এই মার্কিন সংস্থা। শিক্ষা, সাম্য, স্বাধীনতা কিংবা ধর্মীয় বিশ্বের মতোই ইন্টারনেট পরিষেবাও একটি মৌলিক অধিকার— এমনটাই দাবি সুরুচির। 

কিন্তু প্রশ্ন থেকে যায় অন্য জায়গায়। দেশের সীমানা পেরিয়ে গোটা বিশ্বে কীভাবে বিনামূল্যে ইন্টারনেট পরিষেবা প্রদান করবে সুরুচির এই সংস্থা? জায়েন্ট মূলত একটি টোকেন-ভিত্তিক ব্যান্ডউইথ প্ল্যাটফর্ম। টোকেন কানেক্টিভিটি প্রদানকারী কোম্পানিগুলির সঙ্গে গাঁট ছড়া বেঁধেই এই পরিষেবা বাজারে আনতে চলেছেন সুরুচি। আর তার মাধ্যমেই যে কেউ স্মার্টফোন থেকে ব্যবহার করতে পারবেন বিনামূল্যের ‘ওয়েব ৩.০’ ইন্টারনেট। 

এক দশক আগে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের খ্যাতনাম এক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কম্পিউটার কমিউনিকেশনে স্নাতকোত্তর করেছিলেন সুরুচি। তারপর তাঁর অভিষেক হয় টেলিকম শিল্পের দুনিয়ায়। কাজ করতে গিয়েই সুরুচির অভিজ্ঞতা হয়, একাধিক সমস্যায় জর্জরিত ইন্টারনেট পরিষেবা ও টেলিকম শিল্প। সেই সমস্যাগুলির সমাধান করতেই স্বতন্ত্রভাবে একটি সংস্থা প্রতিষ্ঠা করেন সুরুচি। হাতিয়ার করে নেন টোকেন ইন্টারনেট সংযোগকে। ইন্টারনেটকে ডিজিটাল সম্পদে পরিণত করাই তাঁর মূল লক্ষ্য। 

বর্তমানে ৫০০ কোটিরও বেশি মানুষ ব্রডব্যান্ড এবং মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারে খরচ করে থাকেন ২ ট্রিলিয়ন ডলার অর্থ। ডিজিটাল কারেন্সি বা টোকেনের মাধ্যমে এই ব্যান্ডউইথকেই ‘ভার্চুয়াল মুদ্রা’-য় পরিণত করতে চান সুরুচি। যা অনলাইনে মোবাইল ডেটাকে রূপান্তরিত করবে ব্লকচেইন কেন্দ্রিক টোকেনে। এখনও পর্যন্ত বেশ কিছু টেলিকম ও টোকেন সংস্থার সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেছে ‘জায়েন্ট প্রোটোকল’। কিন্তু প্রকল্পের বাস্তবায়নে এখনও বেশ খানিকটা সময় লাগবে বলেই মনে করছেন সুরুচি। তবে ইন্টারনেট পরিষেবার দুনিয়ায় তাঁর সংস্থা বিপ্লব আনতে চলেছে আগামীতে, তাতে সন্দেহ নেই কোনো…

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More