ক্যাপিটল-হামলাকারীদের বিচিত্র পোশাকের কারণ কী? রহস্য ঘনীভূত মার্কিন প্রদেশে

কারোর মুখে লাল-সাদা-নীল রং করা। কারোর আবার ট্রাম্পের মতো টুপি। কেউ পরেছিছেন সুপারহিরোর মতো কস্টিউম, আমেরিকার পতাকা লাগানো জ্যাকেট। ক্যাপিটল হামলার প্রাক্কালে র্যা লিতে এমনই বিচিত্র সাজে সেজে এসেছিলেন ট্রাম্প সমর্থকরা। তবে তার মধ্যেও বিশেষ করে দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিলেন পশু-পাখির পোশাক এমনকি গিলি স্যুট পরা কিছু হামলাকারী। কিন্তু এমন ড্রেস কোডের পিছনে কারণ কী ছিল সেদিনের র্যা লিতে? বিস্ময়-মোড়া প্রশ্ন থাকছে সেই জায়গাটাতেই।

প্রত্যেক আন্দোলনেই কিছু না কিছু অভিন্ন পোশাক থাকে। যা মূলত চিহ্নিত করে তাঁদের সম্মিলিত প্রচেষ্টা এবং অভিন্ন মানসিকতাকে। তবে ‘স্টপ দ্য স্টিল’-এর ক্ষেত্রে একেবারেই সেই ছবি ছিল না। অংশগ্রহণকারীদের কেউ সেজে এসেছিলেন যোদ্ধা, কেউ শিকারি, কেউ জল্লাদ। কাজেই ফেডেরাল এজেন্টদের প্রাথমিক ধারণা হিংসাত্মক মনোভাব নিয়েই এসেছিলেন তাঁরা। শান্তিপূর্ণ বিদ্রোহের বদলে হামলার পূর্বাভাস দিতেই ব্যবহৃত হয়েছিল এই ধরণের পোশাক।

তবে এসবের মধ্যে সবথেকে ভাইরাল হয়েছিলেন মোষের শিং কিংবা ঈগলের মুখোশ পরিহিত আন্দোলনকারীরা। সম্প্রতি মার্কিন পুলিশের হাতে জ্যাকব চান্সলি নামের মোষের শিং পরিহিত ক্যাপিটল-অনুপ্রবেশকারী গ্রেপ্তারও হয়েছেন। তবে তাঁর উদ্দেশ্যর ব্যাপারে কোনো দিশাই দেখতে পাচ্ছে না মার্কিন প্রশাসন।

জানা গেছে, জ্যাকব চান্সলি নামের ওই ব্যক্তি বিতর্কিত কিউঅ্যানন বিষয়ক তত্ত্বপ্রচারে অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছিলেন তিনি। তাঁর মতে শয়তানের উপাসক একটি গোপন সংস্থা বিশ্বব্যাপী নজরদারি চালাচ্ছে। সেই সংগঠনের মদতেই দাবানল থেকে শুরু করে মহামারী, খরা, আবহাওয়া পরিবর্তন। তবে বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প একা হাতেই লড়ে যাচ্ছেন এই সংগঠনের বিরুদ্ধে। তাই সিংহাসনে রাখা দরকার তাঁকে। এমনটাই দাবিতে ক্যাপিটলে প্রবেশ করেছিলেন তিনি। তাঁর মতে শুধু সাধারণ মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ করতেই এই ধরণের পোশাক। 

তবে এই ধরণের পোশাকের পিছনে কারণ হিসাবে পরিচয় গোপনের প্রচেষ্টাকেও এড়ানো যাচ্ছে না। অনেকটা জোকার সিনেমার মতোই মুখোশের আড়ালে থেকেই হিংসা ছড়ানোর চেষ্টা বলেও মনে করছেন অনেকে। কিন্তু স্পষ্ট ব্যাখ্যা দিতে পারছেন না কেউ-ই। ষড়যন্ত্র, পূর্ব-পরিকল্পিত ছক, নিছকই কুসংস্কার বা কালা-জাদু — তাল পাকিয়ে যাচ্ছে একসঙ্গে। সব মিলিয়ে এই ‘গো অ্যাস ইউ লাইক’ প্যারেড, প্রাথমিক কমেডির আবহকেই করে তুলেছিল আতঙ্কের...

Powered by Froala Editor

আরও পড়ুন
ব্রিটিশ হামলা থেকে স্বাধীন দ্বীপের দাবি – এর আগেও বহুবার আক্রান্ত হয়েছে মার্কিন ‘ক্যাপিটল’

More From Author See More

Latest News See More