আদিত্যনাথের নির্বাচনী প্রচারে ‘মা ফ্লাইওভার’ – সামাজিক মাধ্যমে বিদ্রুপের ঝড়

“পৃথিবীর দীর্ঘতম উড়ালপুল ‘মা ফ্লাইওভার’ (Maa Flyover)। কলকাতা থেকে উত্তরপ্রদেশ পর্যন্ত তার বিস্তার।” অথবা, “উত্তরপ্রদেশের (Uttarpradesh) মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে (Yogi Adityanath) ধন্যবাদ, কলকাতাকে মা ফ্লাইওভার উপহার দেওয়ার জন্য।” সামাজিক মাধ্যমে এমনই নানা ব্যাঙ্গাত্মক পোস্ট ভাইরাল হয়ে উঠেছে কয়েক ঘণ্টার মধ্যে। আর তার কেন্দ্রে রয়েছে একটি বিজ্ঞাপন। আজ সকালে ‘দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস’-এর (The Indian Express) প্রথম পাতাজুড়ে প্রকাশিত বিজ্ঞাপনে যোগী আদিত্যনাথের ছবির সঙ্গে উত্তরপ্রদেশের উন্নয়নের প্রমাণ হিসাবে ব্যবহার করা হয়েছে দুটি ছবি। যার একটিতে ফ্লাইওভারের গায়ে নীল-সাদা রং এবং তার উপরে হলুদ ট্যাক্সি স্পষ্ট।

২০২২ সালের মার্চ মাসেই অনুষ্ঠিত হতে চলেছে উত্তরপ্রদেশের বিধানসভা নির্বাচন। নির্বাচনকে সামনে রেখে ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে প্রচারের কাজ। আর সেই ভোটপ্রচারের অংশ হিসাবেই দেশের প্রথমসারির সংবাদপত্রের পাতায় প্রকাশিত হয়েছে এই বিজ্ঞাপন। ছবিটি দেখে স্বাভাবিকভাবেই চিনতে অসুবিধা হয়নি কলকাতাবাসীর। সামাজিক মাধ্যমে রাজনৈতিক তর্জার পাশাপাশি তাই শুরু হয়ে গিয়েছে ব্যাঙ্গ-বিদ্রুপও। অনেকে আবার লিখেছেন, আদিত্যনাথের মতো মুখ্যমন্ত্রীর উন্নয়ন কর্মসূচিকে ছোটো করতেই মা ফ্লাইওভারের মতো নিম্নমানের উড়ালপুলের ছবি ব্যবহার করেছে। আদিত্যনাথের উচিৎ এই নিয়ে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া।

তবে শুধুই মা ফ্লাইওভারের ছবি নয়, বিজ্ঞাপনে ব্যবহৃত অন্য ছবিটি নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। এইচএসই ভিশন নামক একটি কোম্পানির ওয়েবসাইট কভারেও ছবিটি ব্যবহার করা হয়েছে। যদিও সেখানে কোম্পানির তরফ থেকে বলা হয়েছে ছবিটি প্রতীকী। মধ্যপ্রাচ্য এবং আফ্রিকার দেশে ইঞ্জিনিয়ারিং-এর কাজ করে থাকে এই এইচএসই ভিশন কোম্পানিটি। ইতিমধ্যে বিতর্কের মুখে অন্তর্জাল থেকে বিজ্ঞাপনটি সরিয়ে নিয়েছে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস। পাশাপাশি সংবাদপত্রটির টুইটার হ্যান্ডেল থেকে পোস্ট করে ভুল স্বীকার করা হয়েছে। বিজ্ঞাপন বিভাগের ভুলের কারণেই এই ছবি প্রকাশিত হয়েছে বলে জানিয়েছে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস। তবে এই স্বীকারোক্তির পর নতুন করে বিতর্ক শুরু হয়েছে। সাধারণত এই ধরনের বিজ্ঞাপনে সংবাদপত্র কেবল সেটি প্রকাশ করে। বিজ্ঞাপনে ভুল থাকার দায় সংবাদপত্রের নয়, এমনটা স্পষ্ট বলা থাকে। তাহলে এই বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে কি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসই সমস্ত ব্যবস্থাপনা করেছে? সংবাদপত্র যদি সরাসরি কোনো রাজনৈতিক দলের নির্বাচনী প্রচারের সঙ্গে যুক্ত থাকে, তাহলে তা দেশের গণতন্ত্রের পক্ষে যথেষ্ট আশঙ্কার বিষয়, এমনটাই মত নেটিজেনদের একাংশের।

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More