সংবিধান থেকে বাদ পড়ুক ‘রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম’, ধর্মনিরপেক্ষ বাংলাদেশ গঠনের উদ্যোগ

বাংলাদেশকে ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করার যুগান্তকারী উদ্যোগ নিলেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অশোক কুমার ঘোষ। এই দাবিতে সম্প্রতি তিনি লিগাল নোটিস পাঠান আওয়ামী লীগের মন্ত্রিপরিষদের সচিব, আইন মন্ত্রণালয়ের সচিব, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ সংশ্লিষ্ট ১০ জনকে। এছাড়াও অন্যান্য দলীয় শীর্ষনেতাদের কাছেও পৌঁছেছে এই নোটিস।

লিগাল নোটিসে বলা হয়, আগামী ১৫ দিনের মধ্যেই বাংলাদেশের সংবিধান থেকে বাদ দিতে হবে রাষ্ট্রধর্মকে। ইসলামের বদলে বাংলাদেশ হোক ধর্মনিরপেক্ষ, এই দাবি নিয়েই উদ্যোগী হয়েছেন মাইনরিটি সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি অশোক ঘোষ। ১৫ দিনের মধ্যে কোনো পদক্ষেপ না নেওয়া হলে সর্বোচ্চ আদালতে জনগণের পক্ষে রিট পিটিশন জমা দেওয়ার কথাও জানান তিনি।

১৯৭১ সালে স্বাধীনতা অর্জন করেছিল বাংলাদেশ। পূর্ব-পাকিস্তানের সঙ্গে রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের সেই ইতিহাস এখনও দগদগে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু মুজিবর রহমান চেয়েছিলেন বাংলাদেশ হোক সকল ধর্মের মানুষের আবাসস্থল। স্বাধীনতার পর বাংলাদেশের সংবিধানে স্পষ্টই উল্লেখিত ছিল ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্রের কথা। কিন্তু সাম্প্রদায়িকতার শিকড় বিস্তৃত হয়েছিল বহুদূর অবধি। ১৯৭৫ সালে ১৫ আগস্টে সপরিবারে হত্যা করা হয় বঙ্গবন্ধুকে। অনেক কিছুর সঙ্গে পাল্টে যায় দেশের সংবিধানের ভাষাও। রাষ্ট্রধর্ম হিসাবে যুক্ত করা হয় ইসলামকে। মুজিববর্ষে এবং রাষ্ট্রপিতার মৃত্যুর ৪৫ বছর পর তাঁর সেই উদ্দেশ্যকেই একরকম বাস্তবায়িত করতেই এই উদ্যোগ। তবে এই বিষয়ে বিল প্রকাশ করে তা সংসদে পাশ করানোও আবশ্যিক বলে জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের ওই আইনজীবী...

Powered by Froala Editor

আরও পড়ুন
মুক্তিযোদ্ধা থেকে শিক্ষাব্রতী – বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থার উন্নয়নে ‘বাচ্চু ভাই’ ছিলেন নিরলস

More From Author See More

Latest News See More

avcılar escortbahçeşehir escortdeneme bonusu veren sitelerbahis siteleri