করোনার আবহে দিল্লিতে স্থগিত মহরমের শোভাযাত্রা, ৭০০ বছরের ইতিহাসে এই প্রথম

দিল্লির ৭০০ বছরের ইতিহাসে এই প্রথমবার। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে দিল্লিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হল মহরমের ‘তাজিয়া’-র শোভাযাত্রায়। ১৯৪৭ সালে দেশভাগের সময়ও বন্ধ হয়নি এই উৎসব। মহামারীকে বাগে আনতে কেন্দ্র এবং দিল্লি সরকার এই ব্যতিক্রমী সিদ্ধান্ত নিতেই বাধ্য হল অবশেষে।

দিল্লির হজরত নিজামুদ্দিন আউলিয়ার দরগা থেকে খানিক দূরেই ইমামবাড়ায় ৭০০ বছর ধরে সংরক্ষিত বিশ্বের বৃহত্তম তাজিয়াটি। তার সঙ্গে আরও চারটি তাজিয়া ফুল দিয়ে সাজানো হয়। মহরমের দশম দিনে হজরত ইমাম হোসেনের হত্যার কথা স্মরণ করে সেই তাজিয়া পাঠানো হয় কারবালায়। সঙ্গে আয়োজিত হয় লাঠি, তরবারি খেলা। 

প্রতিবছরই মহরমের প্রথম দিন থেকেই বসে মজলিশ। বিভিন্ন জায়গায় তাজিয়া সাজানো হয় এই দিন থেকেই। তারপর দশমদিনে শুরু হয় যাত্রা। কিন্তু এই বছর এই সব আয়োজনই থমকে গেছে ভাইরাসের সংক্রমণে। তরবারি খেলা এবং মজলিশের আয়োজন হবে কেবলমাত্র মহরমের দ্বাদশ দিনে। এবং তা সামাজিক দূরত্ব মেনেই কেবলমাত্র ইমামবাড়াতে অনুষ্ঠিত হবে এ-বছর।

দিল্লিতে কয়েক হাজার শ্রমিকের উপার্জন নির্ভর করে তাজিয়া তৈরির কাজের উপরেই। এই বছর কেউ তাজিয়া না কেনায় বিপাকে পড়েছেন তাঁরাও। জানান নিজামুদ্দিন আউলিয়া দরগার এক আধিকারিক। পাশাপাশিই দিল্লিতে হিন্দু ধর্মাবলম্বীরাও জড়িয়ে আছেন এই শতাব্দীপ্রাচীন অনুষ্ঠানের সঙ্গে। অজস্র হিন্দু ভিড় করেন এই শোভাযাত্রা দেখার জন্যে। মহামারীর অবহ এবছর কার্যত জল ঢেলে দিয়েছে সেই উৎসবের আমেজে। দিল্লির পাশাপাশি অন্য অনেক রাজ্যে মহরম পালনের ছাড় মিললেও, বিশেষ গাইডলাইন তৈরি করেছে প্রশাসন। বলাই বাহুল্য, অন্য বছরগুলির থেকে মহরম একেবারেই অন্যরকম হবে এ বছর... 

আরও পড়ুন
বন্দিদের মুক্তি দিয়ে, সাম্যপ্রতিষ্ঠার আনন্দেই শুরু হয়েছিল ঈদ-উল-ফিতর

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More