১১ বছরের খুদে মানবাধিকার কর্মীকে খুনের হুমকি কলম্বিয়ায়

বয়স মাত্র ১১ বছর। আর কলম্বিয়ার এই ছোট্ট শিশুকেই এবার মুখোমুখি হতে হল প্রাণনাশের হুমকির। মহামারী চলাকালীন সময়ে শিক্ষাক্ষেত্রে ছাত্রছাত্রীদের ভালো সুযোগ করে দিতে ব্যর্থ কলম্বিয়া সরকার। আর তার বিরুদ্ধেই ক্রমাগত সক্রিয়ভাবে প্রতিবাদ করে চলেছে ফ্রান্সিসকো ভেরা। আর এই ছোট্ট শিশুর প্রচারের বেশ প্রভাব পড়ছে সমাজে। এই তার অপরাধ। ছোট্ট শিশুর ওপর এহেন হুমকি এবং মানুষের অসহিষ্ণুতায় অবাক গোটা পৃথিবীই।

গত ১৫ জানুয়ারি ভেরা টুইটার হ্যান্ডেলে পোস্ট করে একটি ভিডিও। অনলাইনে পাঠ্যরত ছাত্রছাত্রীদের জন্য ইন্টারনেট সংযোগের উন্নয়নের আবেদন জানায় কলম্বিয়া সরকারের কাছে। ভেরার এই উদ্যোগকে স্বীকৃতি দেয় জাতিসংঘও। আর পরেই বেনামী একটি অ্যাকাউন্ট থেকে মৃত্যুর হুমকি ধেয়ে আসে ছোট্ট শিশুটির দিকে।

সম্প্রতি ভেরাকে আশ্বাস দিয়ে একটি চিঠি পাঠিয়েছে জাতিসংঘ। আর তারপরই নড়ে চড়ে বসেছে কলম্বিয়া প্রশাসন। খোদ কলম্বিয়ার রাষ্ট্রপতি ইভান ডিউক জানিয়েছেন বিষয়টি নিয়ে জাতীয় স্তরে তদন্ত করে দেখা হবে। যে বা যারা যুক্ত এই কাজের সঙ্গে, শাস্তি হবে সকলেরই।

উল্লেখ্য, এর আগে কলম্বিয়ায় এই ধরণের সক্রিয়কর্মীদের হত্যার ঘটনা চোখে পড়েছে বহুবার। গত বছরেই ৫৩ জন মানবাধিকারকর্মী এবং ৮০ জনের বেশি পরিবেশকর্মীর প্রাণ গেছে প্রতিবাদের পর। তবে এতকিছুর পরও শান্ত রয়েছে ছোট্ট কিশোর। ভেরা স্বাগত জানিয়েছে এই হুমকিকে। ছোট্ট শিশুটি তার মতবাদের সমালোচনা হিসাবেই দেখতে চায় এই ঘটনা।

তবে শুধু শিক্ষাক্ষেত্রে নয়, পরিবেশের রক্ষা এবং শিশু অধিকার নিয়েও কাজ করে চলেছে ভেরা। তখন বয়স মাত্র ৬ বছর। প্রথম এই ধরণের আন্দোলনের সামিল হয়েছিল কলম্বিয়ান কিশোরটি। পরিবারের সঙ্গে জোট বেঁধেই সম্মেলন ও প্রচারসভায় অংশ নিয়েছিল বুল-ফাইটিংয়ের বিরুদ্ধে। 

কলম্বিয়ার রাজধানী বোগোতা থেকে ৯০ কিলোমিটার দূরে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে মোড়া ভিলেটো শহরে বাস করে ভেরা। বাড়িতে চল আছে হাঁস, মুরগি, ভেড়া, গরু প্রতিপালনের। সেইসঙ্গে চাষাবাদও পারিবারিক জীবিকা। কাজেই ছোট থেকে তার আত্মীয়তা গড়ে উঠেছিল পরিবেশের সঙ্গে। বাড়ির অভিভাবকরাও সক্রিয় পরিবেশকর্মী হওয়ায়, বাড়তি অনুপ্রেরণা পেয়েছে ভেরা।

আরও পড়ুন
‘অপরাধ’ পরিবেশের জন্য লড়াই করা, গুলিতে ঝাঁঝরা কলম্বিয়ার পরিবেশকর্মী

২০১৯ সালে ভিলেটো শহরেই একটি পরিবেশ সুরক্ষা সংগঠন তৈরি করে ভেরা। ‘গার্ডিয়ান অফ লাইফ’ নামের সেই গ্রুপটির প্রথম সদস্য বলতে তার পাশে ছিল স্কুলের মাত্র পাঁচ জন কিশোর বন্ধু। পরিবেশ সুরক্ষা এবং সংরক্ষণের জন্য রাজধানীর রাস্তায় মিছিলও করেছিল এই ছয় খুদে পরিবেশকর্মী। বর্তমানে সারা কলম্বিয়ায় এই সংগঠনের সদস্য সংখ্যা ছাপিয়ে গেছে ২০০-র গণ্ডি।

প্লাস্টিকের ব্যবহার নিষিদ্ধ করার আবেদন-সহ, জাতীয় সংরক্ষিত অরণ্যে বে-আইনি খনন, পশুহত্যা, দূষণ নিয়ে একাধিক আন্দোলনে করে চলেছে ভেরা। তাছাড়াও গ্রেটা থুনবার্গের ‘ফ্রাইডেস ফর মিউচার মুভমেন্ট’-এরও অন্যতম সদস্য সে। পরিবেশ রক্ষায় তার এই উল্লেখযোগ্য অবদানের জন্য স্থানীয় আদিবাসী উপজাতিদের কাছেও ভেরা যথেষ্ট জনপ্রিয়। তাঁদের থেকে পেয়েছে ‘পরিবেশ নায়ক’-এর তকমাও।

এই প্রাণনাশের হুমকির পরেও এতটুকু বিচলিত নন কলম্বিয়ার এই কিশোরের অভিভাবকরা। বিপদের ঝুঁকি সত্ত্বেও তার বাবা জানিয়েছে, সংবেদনশীল এই বিষয়গুলিতে এগিয়ে আসার দরকার সবথেকে বেশি খুদেদের। কারণ তারাই ভবিষ্যৎ প্রজন্ম। নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে গেলে পরিবেশের রক্ষার জন্য তাদেরকেই অংশ নিতে হবে সবথেকে আগে। শুধু ভেরা নয়, তার পরিবারের এই নির্ভিকতাও নজিরবিহীন দৃষ্টান্ত। যা নতুন করে অনুপ্রেরণা জোগাচ্ছে কিশোর এবং তরুণদের মধ্যে…

আরও পড়ুন
ধোনির ছোট্ট মেয়েকে ধর্ষণের হুমকি; ক্রিকেট কি এই শিক্ষাই দিচ্ছে আমাদের?

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More