ঠিকভাবে সংরক্ষণ হয়নি পুরাসামগ্রীর, কলকাতা জাদুঘরের সংস্কার প্রকল্প ঘিরে প্রশ্ন

কাজ হয়নি পরিকল্পনা মেনে। সংস্কারের সমস্ত কর্মসূচি সম্পন্ন হলেও এখনও সামনে আনা যাচ্ছে না অসংখ্য প্রত্নসামগ্রী। আর কোনোদিন তাদের ঠিকঠাক অবস্থায় আনা যাবে কিনা, সে ব্যাপারেও সন্দেহ থেকে যায়। কলকাতার ইন্ডিয়ান মিউজিয়াম নিয়ে এমনই মত প্রকাশ করেছে কম্পট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল বা ক্যাগ। আর সেই রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসতেই চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে পুরাতাত্ত্বিক সমাজে।

২০০৫ সাল থেকেই বারবার কলকাতা জাদুঘরের সংস্কারের প্রয়োজন বলে জানিয়ে এসেছে ক্যাগ। কিন্তু প্রয়োজনমতো আর্থিক অনুদান পাওয়া যায়নি বলে অভিযোগ। আর তার ফলেই কাজ করতে হয়েছে ধাপে ধাপে। কিন্তু এবারে সেই কাজ সম্পন্ন হওয়ার কথা থাকলেও সেটা ঠিকভাবে সম্পন্ন হয়নি বলেই জানাচ্ছেন সংস্থার আধিকারিকরা। চলতি আর্থিক বছরের বাজেটে পুরাতত্ত্ব সংস্থাগুলির সংরক্ষণের জন্য বিশেষ বরাদ্দের ব্যবস্থা করেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। কলকাতা জাদুঘরের জন্য প্রাথমিকভাবে ৮৩ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হলেও পরে সেই বাজেট বাড়িয়ে ১০৫ কোটি টাকা করা হয়। তবে শেষ পর্যন্ত মাত্র ২৫ কোটি টাকা খরচ করে অত্যন্ত দায়সারাভাবে কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে বলেই অভিযোগ।

ক্যাগের রিপোর্টের সমর্থন জানিয়েছেন ন্যাশানাল বিল্ডিং কনস্ট্রাকসন কর্পোরেশনের কর্মীদের একাংশ। এইধরনের ঐতিহাসিক স্থাপত্যের সংরক্ষণের কাজ তাঁরাই করে থাকেন। তাঁদের দাবি, নির্দিষ্ট নিয়ম মেনে সংরক্ষণের কাজ এগোয়নি। আরও যত্ন নিয়ে কাজ করা উচিৎ ছিল। এর আগে তাড়াহুড়ো করে সংস্কারের কাজ করতে গিয়ে প্রাণহানির সম্ভবনাও দেখা গিয়েছে। কিন্তু তারপরেও সচেতন হয়নি কর্তৃপক্ষ। অন্যদিকে সরকারের বরাদ্দ টাকা ঠিক সময় এসে পৌঁছয়নি বলেও অভিযোগ জানিয়েছেন পুরাতাত্ত্বিকদের একাংশ। এখন অসংখ্য ঐতিহাসিক সামগ্রীর ভবিষ্যত কী, সেটাই সবচেয়ে বড়ো প্রশ্ন।

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More