porno

şanlıurfa otogar araç kiralama

bakırköy escort

১ মিনিটে ১৯৬টি অঙ্কের সমাধান, গিনেস বুকে নাম তুলল ১০ বছরের কিশোর - Prohor

১ মিনিটে ১৯৬টি অঙ্কের সমাধান, গিনেস বুকে নাম তুলল ১০ বছরের কিশোর

১ মিনিটে বা ৬০ সেকেন্ডে গড়ে ৭২ বার হৃদস্পন্দন হয় স্বাভাবিক মানুষের। অর্থাৎ গড়ে প্রতি সেকেন্ডে ১.২ বার। তার থেকেও দ্রুত অঙ্কের সমাধান করেই বিশ্বরেকর্ড গড়ল ভারতীয় প্রবাসী কিশোর নাদাব গিল। মাত্র ১ মিনিটেই ১৯৬টা গাণিতিক সমস্যাকে তুড়ি মেরেই উড়িয়ে দিল এই কিশোর। অর্থাৎ ১ সেকেন্ডে গড়ে তিনটির বেশি অঙ্ক। প্রাথমিকভাবে অবিশ্বাস্য মনে হলেও যা সত্যি।

ইংল্যান্ডেই বসবাস নাদাবের। বয়স মাত্র ১০ বছর। লং এটোনের লংমুর প্রাইমারি স্কুলের ছাত্র নাদাব গিল। তবে লকডাউনে বন্ধ রয়েছে স্কুলের পঠনপাঠন। তা বলে কি বাড়িতে বসে থাকা যায় বিনা চর্চায়? এই লকডাউনে তাই মগজাস্ত্রকেই শান দিয়েছে নাদাব। পরিধি বাড়িয়েছে  প্রিয় বিষয় গণিতে পারদর্শিতার। অনুশীলনের মাধ্যমে শিখরে নিয়ে গিয়েছে গাণিতিক দক্ষতার গতিবেগ। 

সম্প্রতি ‘টাইমস টেবিল রক স্টারস’ নামক একটি অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে নিজেকে যাচাই করে নেওয়ার জন্য পরীক্ষা দিয়েছিল বছর দশকের এই কিশোর। সেখানেই ১ মিনিটে ১৯৬টি অঙ্কের সমাধান করে সে। এই পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল আরো ৭০০ জন পরীক্ষার্থী। তবে নাদাবের ধারে কাছেও পৌঁছাতে পারেনি কেউ। 

নতুন এই রেকর্ডকে সম্প্রতি স্বীকৃতি দিয়েছে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড। ছোট্ট কিশোর নাদাবের এই কীর্তিতে আশ্চর্য হয়েছেন গিনেস বুকের চিফ এডিটর ক্রেজ গ্লেনডেও। তিনি জানাচ্ছেন, নাদাব যে শুধুমাত্র গাণিতিক বিষয়ে পারদর্শী তা নয়। পরীক্ষা দেওয়ার সময় প্রায় ঝড়ের গতিতেই কম্পিউটার কি-বোর্ডে ছুটতে দেখা গিয়েছিল তাঁর আঙুল। যা একদিক থেকে শারীরিক ও মানসিক পরীক্ষাও, মনে করছেন ক্রেজ। সেদিক থেকেও মুগ্ধ তিনি। পাশাপাশি তাঁকে অবাক করেছে নাদাবের স্বল্প বয়েস।

নাদাবের পরীক্ষা দেওয়ার সেই ভিডিও সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে নেট দুনিয়ায়। উচ্ছ্বসিত সারা পৃথিবীর মানুষ। নাদাব নিজেও খুশি, নিজের ক্ষমতা পরখ করতে পেরে। প্রবাসী কিশোরও সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ করেছেন দীর্ঘদিনের স্বপ্নপূরণের আনন্দ...

Powered by Froala Editor

আরও পড়ুন
নতুন রেকর্ড রাজ্যে, একদিনে ভাইরাসে আক্রান্ত হলেন সাড়ে ছ’শো মানুষ

More From Author See More

Latest News See More