ভাঙল হাড়, তাও চালিয়ে গেলেন খেলা; মহিলা ফুটবলারের কীর্তি

খেলা চলছিল দিব্যি। বল পায়ে, দুই দলের হাড্ডাহাড্ডি লড়াই উপভোগ করছিলেন দর্শকরাও। হঠাৎই ছন্দপতন। পড়ে গিয়ে হাঁটুর হাড় সরে গেল একজন খেলোয়াড়ের। সবাই তটস্থ; এবার কী করে খেলা হবে! ঘটনার এখানেই শেষ নয়। থামেনি খেলাও। হাঁটুর ওপর চড় মেরে আবার খেলতে শুরু করলেন। শেষ করলেন পুরোটা। স্কটল্যান্ডের মহিলা ফুটবলে এমন দৃশ্য অবাক করেছে খেলার দুনিয়াকে।

সম্প্রতি স্কটল্যান্ড মহিলা লিগে ফুটবল ম্যাচ চলছিল। সেন্ট মিরেন ডব্লিউএফসি-এর প্রতিপক্ষ ছিল ইনভারনেস ক্যালেডোনিয়ান থিসল ক্লাব। ঠিকঠাকই চলছিল সব। এমন সময় কড়া ট্যাকলের মুখে সেন্ট মিরেনের ক্যাপ্টেন জেন ও’টুল মাটিতে পড়ে যান। সঙ্গে সঙ্গে ব্যাথায় চিৎকার করে ওঠেন তিনি। দেখা যায়, হাঁটুর হাড় সরে গেছে। দুই দলের খেলোয়াড়, রেফারি— প্রত্যেকেই দৌড়ে আসে।

আরও পড়ুন
অপারেশন চলছে মস্তিষ্কে, সুরের জ্ঞান বাঁচাতে ভায়োলিন বাজিয়ে চললেন রোগী

কিন্তু মাঠের বাইরে চলে যাননি জেন। ক্রমাগত হাঁটুর ওপর চড় মারতে থাকেন, যাতে হাড় আবার আগের জায়গায় চলে যেতে পারে। একসময় সেটা হয়েও যায়। তারপরেও পুরো ম্যাচ খেলে যান তিনি। সামনে থেকে দলকে নেতৃত্বও দেন। ম্যাচটি সেন্ট মিরেন ডব্লিউএফসি জিতেও যায় ৭-০ তে। কিন্তু তার থেকেও সামনে আসে জেনের এই অসামান্য সাহসের খবরটি। নেট দুনিয়ায় রীতিমত ভাইরাল হয়ে যায় এই ভিডিও। খেলার জগতে অনেক সময়ই সামনে উঠে এসেছে মেয়েরা। শুধু খেলার জগতেই নয়, সমাজের অন্যান্য ক্ষেত্রেও এই ঘটনা উৎসাহ যোগায় সবাইকে। আমরা পেয়েছি মার্টিনা নাভ্রাতিলোভা, সেরেনা উইলিয়ামস, মেরি কমদের। মেয়েদের কাজ যে শুধু রান্না করা, সংসার সামলানো- এই ধারণার বদল হয়েছে আজ। শুধু এসবই নয়, তাঁরা যে সাহসী; নিজের দলের প্রতি, কাজের প্রতি যে দায়বদ্ধ, সে কথাই আবারও প্রমাণ করলেন ফুটবলার জেন ও’টুল। অনেকে এর উল্টোপিঠের উদাহরণ হিসেবে টেনে আনছেন নেইমারের প্লে অ্যাকটিংয়ের প্রসঙ্গও। সব মিলিয়ে, ফুটবল জগতে জেনেরই জয়জয়কার।

More From Author See More

Latest News See More